মালদা

  • মালদা জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর এর উদ্যোগে পালিত হল বিশ্ব তামাক বর্জন দিবস

    newsbazar24: মালদা জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর এর উদ্যোগে  (৩০শে মে, শুক্রবার) পালিত হল বিশ্ব তামাক বর্জন দিবস। তামাকের বিরুদ্ধে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে দিবসটি পালিত হচ্ছে রাজ্যের অন্যান্য স্থানের মতো মালদাতেও। তামাক জাতীয় দ্রব্যের মধ্যে ধূমপান মানবদেহের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। অথচ প্রতিনিয়ত আমাদের দেশে ও রাজ্যে ধূমপায়ীর সংখ্যা বেড়ে চলেছে।এর মধ্যে ৪০ শতাংশ ধূমপান শুরু করে ১৮ বছরের কম বয়সে। দেশের অন্যান্য রাজ্যের মতো মালদাতেও ধূমপানে আসক্ত লাখ লাখ মানুষ। এছাড়া, তামাকজাত পণ্য ব্যবহারের কারণে সৃষ্ট নানা রোগে প্রতি বছর রাজ্যে বহু মানুষ মারা যায়। আর ধূমপানজনিত সৃষ্ট রোগের চিকিৎসা করতে সরকারের ব্যয় হয় কোটি কোটি টাকা। ওপরদিকে সিগারেট কোম্পানিগুলো কৃষি জমিতে তামাক চাষে উদ্বুদ্ধ করছে কৃষকদের। এতে কৃষকরা খুব একটা লাভবান না হলেও লাভবান হচ্ছে সিগারেট কোম্পানিগুলো। আর এতে মানুষের স্বাস্থ্য, পরিবেশসহ সার্বিক অর্থনীতির সর্বনাশ হচ্ছে। এই প্রেক্ষাপটে মালদা জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর এ -এর পরিচালনায় পালিত পালিত হযে গেলো বিশ্ব তামাক বর্জন দিবস অনুষ্ঠান। এদিন বিকেলে            জেলা আই এম এ ভবনে তামাক বর্জন নিয়ে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। তামাক বর্জনের নানা স্লোগান নিয়ে একটি পদযাত্রা  গোটা মালদা শহর পরিক্রমা করার সঙ্গে মানুষদের তামাক সমন্ধে সচেনতা ও তামাক চাষ না করার জন্য কৃষকদের অনুরোধ করা হয়। এদিন এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মূখ্য জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিক ডঃ সৈয়দ সাহাজাহান সিরাজ, উপ জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিক(২) ডঃ অমিতাভ মন্ডল, উপ জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিক(৩) মৃণাল ক্রান্তি ঘোষ ও ডঃ ডি সরকার সহ অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যাক্তি রা। এছাড়া বিভিন্ন স্কুলের ছাত্র ও ছাত্রীরাও এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন করে। 

  • *দুবেলা অন্যের সংস্হান নেই । নিতে পারে নি একটি ও টিউশনি । উচ্চ মাধ্যমিকে 457 নম্বর পেয়েও উচ্চ শিক্ষা অনিশ্চিত হামিদপুর চরের ছাত্রী বেবি মন্ডলের ।*

    News Bazar24 :দুবেলা বাড়িতে ঠিকমতো খেতে পায় না । টিউশনি পড়ার সুযোগ হয় নি । ঠিক মতো বই কেনার পয়সা জুটে নি । মায়ের সাথে বিড়ি বেধে কখনো লেবার খেটে নিজের পড়ারখরচ জোগিয়েএবারের উচ্চ মাধ্যমিকে 90 শতাংশের বেশি নম্বর পেয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছে যুগলতলা হাইস্কুলের ছাত্রী বেবি মন্ডল । বেবির প্রাপ্ত নম্বর 457 । দুস্হ কৃতি ছাত্রী বেবি মন্ডল । মোথাবাড়ি এলাকার হামিদপুর চড়েবেবির বাড়ি । বাবা সুখেন মন্ডল বহুদিন আগেই মারা গেছে। মা মিনা মন্ডল বিড়ি বেঁধে কোনক্রমে সংসার চালায় । বাড়ি থেকে পাঁচ কিলোমিটার গঙ্গার চর পেরিয়ে যুগলতলা হাই স্কুলে পড়াশোনা করতো বেবি। আর্থিক কারণে একটি বিষয়ও প্রাইভেট টিউশনি নিতে পারেনি সে । কাজের ফাঁকে মাঝে মধ্যে মায়ের সঙ্গে বিড়ি বেঁধে সংসারের সাহায্য করতে হত । এই অবস্থায় আর্থিক দুরবস্থা কে জয় করে বেবি 457 নম্বর পেয়ে গোটা কালিয়াচক 2 নম্বর ব্লকে প্রথম স্থান করে নজর কেড়ে নিয়েছে। বেবি বাংলায় 90 ইংরেজিতে 91 ভূগোলে 92 দর্শনে 94 রাষ্ট্রবিজ্ঞানে 88 ও ইতিহাসে 90 নম্বর পেয়ে।। বেবি জানায় আমরা খুব দুস্থ। বাবা বহু দিন মারা গেছে। মা কোনরকমে বিড়ি বেড়ে ও লেবার খেটে সংসার চালায়। বেবিরা পাঁচ বোন দু ভাই। 4 বোনের বিয়ে হয়ে গেছে। দুই ভাই-বোনেরা সংসারে প্রয়োজনে বিড়ি বাঁধতে হয় ও লেবার খাটতে হয় ।।এই বেবি অবস্থায় প্রতিদিন শুধু টেস্ট বুক রিডিং পড়ে গেছে। পয়শার অভাবে একটা টিউশনি নিতে পারেনি । এই দুরবস্থার 457 নম্বর পেয়ে সবাই কে তাক লাগিয়ে দিয়েছে সেই বালিকা । বেবির সাফল্যে বিদ্যালয়ের সব শিক্ষকরা খুব খুশি । বেবি জানাই আমি ইংরেজি অনার্স নিয়ে পড়তে চাই । ভবিষ্যতে শিক্ষক হতে চাই ।কিন্তু বই কিনে কেনার পয়সা নেই। এতদিন স্কুলের শিক্ষকরা আমাকে অনেক সাহায্য করেছে ।এবার কি করে পড়বো তাই বুঝতে পারছি না ? এই অবস্থায় বেবির উচ্চ শিক্ষা প্রশ্ন চিহ্ণের মধ্যে পরে গেছে । বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক অভিজিত মিশ্র জানাই বেবি অত্যন্ত মেধাবী ছাত্রী ছিল।পারিবারিক দারিদ্রতার মধ্যেও সে পড়াশোনা চালিয়ে যাচ্ছিল। একটা বিষয়েও সে টিউশনি না নিয়ে তারে সাফল্য নজর করা । এতদিন স্কুলের শিক্ষকরা যেভাবে বেবিকে সাহায্য করে গেছে আগামী দিনেও যদি বেবি আমাদের কাছে আসে তাহলে অবশ্যই তাকে সাহায্য করা করব । ==========///========

  • বিড়ি না দেওয়ায় এক মুদি ব্যাবসায়ি ও তার স্ত্রীকে রাতের অন্ধকারে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা

    News Bazar24: - ধারে বিড়ি না দেওয়ায় এক মুদি ব্যাবসায়ি ও তার স্ত্রীকে রাতের অন্ধকারে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ উঠল প্রতিবেশির বিরুদ্ধে। শুক্রবার গভীর রাতে রতুয়া থানার বাহারাল পঞ্চায়েতের পরানপুর গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পরে এলাকায়।তদন্তে নেমেছে রতুয়া থানার পুলিশ। ঘটনার পর থেকে পলাতক অভিযুক্ত। পরিবার ও স্থানীয় সুত্রে জানা গিয়েছে মৃত ব্যাক্তির নাম মহম্মদ কুসুমুদ্দিন (৬০)ও তার স্ত্রী মহেলা বিবি(৫৫)।তাদের বাড়িতে মুদির দোকন রয়েছে। পরিবারে রয়েছে ৯ ছেলমেয়ে। বাড়ি রতুয়া থানার বাহারাল পঞ্চায়েতের পরানপুর গ্রামে। জানা গিয়েছে শুক্রবার রাতে দোকানে বসেছিলেন কুসুমুদ্দিন। সেই সময় প্রতিবেশি জাইলুন মিজ্ঞা দোকানে আসে। ধারে বিড়ি কিনতে চায়। কিন্তু আগের টাকা ধার থাকায় দিতে রাজী হয়নি কুসুমুদ্দিন। এই নিয়ে দুই জনের মধ্যে বিবাদ হয়। স্থানীয় ও পরিবারের লোকেরা বিবাদ থামায়। গভীররাতে কুসুমুদ্দিন ও তার স্ত্রী বাড়ির বারান্দায় ঘুমিয়ে ছিল। অভিযোগ সেই সময় অভিযুক্ত জাইলুন শেখ ঘুমন্ত দুই জনের শরীরে কেরসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগ্নিদগ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় মহেলা বিবির। পরিবারের লোকেরা কুসুমুদ্দিনকে আশঙ্কাজনক আবস্থায় মালদা মেডিকেলে ভর্তি করলে সেখানে মৃত্যু হয়। ঘটনায় রতুয়া থানায় অভিযোগ জানালে তদন্তে নামে পুলিশ। পলাতক অভিযুক্ত।

  •  সেচ দপ্তরের কর্মীদের উপর হামলা তোলাবাজদের, গুরুতর আহত ২জন

    newsbazar24:  সেচ দপ্তরের কর্মীদের উপর হামলা তোলাবাজদের ।বোমার আঘাতে গুরুতর আহত সেচ দপ্তরের দুই জন কর্মী। ঘটনাটি মালদার মানিকচকের ভুতনি কেশর পুরের। ভুতনি হীরানন্দপুর অঞ্চলের কেশরপুরে চলছে ভাঙ্গন রোধের কাজ। প্রায় 36 কোটি টাকা ব্যয়ে সেচ দপ্তর দপ্তরের উদ্যোগে চলছে এই কাজ । আর এই কাজের তোলা আদায়ের জন্য এরূপ দুষ্কৃতী হামলা বলে অভিযোগ ।এর আগেও বেশ কয়েকবার তোলা আদায়ের চেষ্টায় হামলা চালিয়েছে দুষ্কৃতীরা। এর আগেও ব্যাপক বোমাবাজির ঘটনা ঘটেছে ।মাত্র কয়েক সপ্তাহ আগে তোলাবাজদের ছোড়া বোমায় ভাঙ্গন রোধের কাজের  নিরাপত্তার কাজে নিযুক্ত এক সিভিক ভলেন্টিয়ার গুরুতর আহত হয়েছিলেন। ফের একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি। আবারো  তোলাবাজদের হামলা। সেচ দপ্তরের গাড়ি লক্ষ্য করে ব্যাপক বোমাবাজি তোলাবাজদের। আজ দুপুর একটা নাগাদ শেষ দপ্তরের দুই কর্মী চিরঞ্জিত ও মহাম্মদ আলামগীর ভাঙন রোধের কাজ খতিয়ে দেখতে কেশর পুড়ে যাচ্ছিলেন। কেশরপুর থেকে মাত্র এক দেড়শ মিটার দূরে সেচ দপ্তরের গাড়ি লক্ষ্য করে ব্যাপক বোমাবাজি করে তোলা বাজরা ।বোমার আঘাতে গুরুতর আহত হয় সেচ দপ্তরের দুই কর্মী চিরঞ্জিত মিশ্র ও মোহাম্মদ আলমগীর ।তাঁদের প্রথমে মানিকচক হাসপাতালে নিয়ে আসা হয় ।তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তড়িঘড়ি তাদের মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে । তদন্তে ভুতনি থানার পুলিশ।

  • এক মুদি দোকানদার ও তার স্ত্রীকে রাতের অন্ধকারে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ প্রতিবেশির বিরুদ্ধে।

    মালদা,১ জুনঃ  ধারে বিড়ি বিক্রী করতে না চাওয়ায়  এক মুদি ব্যাবসায়ি ও তার স্ত্রীকে রাতের অন্ধকারে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ উঠল প্রতিবেশির বিরুদ্ধে। শুক্রবার গভীর রাতে রতুয়া থানার বাহারাল পঞ্চায়েতের পরানপুর গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পরে এলাকায়।তদন্তে নেমেছে রতুয়া থানার পুলিশ। ঘটনার পর থেকে পলাতক অভিযুক্ত। পরিবার ও স্থানীয় সুত্রে জানা গিয়েছে মৃত ব্যাক্তির নাম মহম্মদ কুসুমুদ্দিন (৬০)ও তার স্ত্রী মহেলা বিবি(৫৫)।তাদের বাড়িতে মুদির দোকন রয়েছে। পরিবারে রয়েছে ৯ ছেলমেয়ে। বাড়ি রতুয়া থানার বাহারাল পঞ্চায়েতের পরানপুর গ্রামে। জানা গিয়েছে শুক্রবার রাতে দোকানে বসেছিলেন কুসুমুদ্দিন। সেই সময় প্রতিবেশি জাইলুন মিজ্ঞা দোকানে আসে। ধারে বিড়ি কিনতে চায়। কিন্তু আগের টাকা ধার থাকায় দিতে রাজী হয়নি কুসুমুদ্দিন। এই নিয়ে দুই জনের মধ্যে বিবাদ হয়। স্থানীয় ও পরিবারের লোকেরা বিবাদ থামায়। গভীররাতে কুসুমুদ্দিন ও তার স্ত্রী বাড়ির বারান্দায় ঘুমিয়ে ছিল। অভিযোগ সেই সময় অভিযুক্ত জাইলুন শেখ ঘুমন্ত দুই জনের শরীরে কেরসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগ্নিদগ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় মহেলা বিবির। পরিবারের লোকেরা কুসুমুদ্দিনকে আশঙ্কাজনক আবস্থায় মালদা মেডিকেলে ভর্তি করলে সেখানে মৃত্যু হয়। ঘটনায় রতুয়া থানায় অভিযোগ জানালে তদন্তে নামে পুলিশ। পলাতক অভিযুক্ত।

  • কল্যাণ সংঘ গ্রামীন গ্রন্থাগারের উদ্যোগে কৃষ্ণপল্লিতে জমজমাট রবীন্দ্র নজরুল সন্ধ্যা।*

    শাউলীনা খাতুন : মালদা শহরের কৃষ্ণপল্লিতে বৃহস্পতিবার রাতে এক মনোজ্ঞ রবীন্দ্র নজরুল সন্ধ্যা অনুষ্ঠিত হলো । আয়োজক স্হানীয় কল্যাণ সংঘ সাধারণ গ্রামীন গ্রন্থাগার। নাচ গান আবৃত্তি ও কবিতা পাঠের মধ্যে দিয়ে শিল্পীরা রবীন্দ্রনাথ ও নজরুল কে স্মরণ করে । অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন কল্যাণ সংঘ সাধারণ গ্রামীন গ্রন্থাগারের গ্রন্থাগারিক শ্রী শান্তনু মজুমদার ।পরবর্তীতে সঙ্গীত পরিবেশন করেন একে একে সুশান্ত কুমার মন্ডল, প্রদীপ্তা আচার্য ও শিতাংশু পান্ডে । নৃত্য পরিবেশন করেন বানীসংঘ আবৃত্তি ওনৃত্যশিক্ষা কেন্দ্রের ছাত্র ছাত্রী রা স্নেহা রায় বর্তিকা কুন্ডু, শুভশ্রী সাহা দীপা মন্ডল ও আবৃত্তি পরিবেশন করেন মধুমিতা কর্মকার । অনুষ্ঠানে শেষে বর্তমানে সমসাময়িক প্রেক্ষাপটে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও নজরুলের ভূমিকা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছেন গৌড় বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড:বিকাশ রায় । অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন নেপু বাগচি । এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট আইনজীবী শ্রী শ্যাম প্রকাশ গুপ্ত , বিশিষ্ট কবি সুনির্মল বসু , বিশিষ্ট সাংবাদিক তনয় মিশ্র, ও কল্যাণ সংঘ গ্রন্থাগারের প্রশাসক শুভাঞ্জন গোস্বামী । ===================

  • পনের দাবিতে গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগ স্বামী সহ শ্বশুর বাড়ির বিরুদ্ধে।

    ৩১মে,মালদা : প্রেমে আবদ্ধ হয়ে বিবাহ,পরে পণের দাবী।পনের দাবিতে গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগ উঠল স্বামী সহ শ্বশুর বাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে।ঘটনার পর থেকেই পলাতক স্বামী সহ শশুরবাড়ির লোকজন। ঘটনাটি ঘটেছে চাঁচল থানার মালতিপুর কাশিপাড়া এলাকায়।পুলিশ দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।ঘটনায় চাঁচল থানায় অভিযোগ জানালে তদন্তে নামে পুলিশ। পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে, মৃত গৃহবধূর নাম বন্দনা দাস(২১)। স্বামী দীপঙ্কর দাস পেশায় ঔষধের দোকানে কর্মী।পরিবারে রয়েছে এক বছরের এক সন্তান।পরিবার সূত্রে জানাগেছে, প্রায় তিন বছর আগে প্রেম সম্পর্কে লিপ্ত হয়ে তাদের বিবাহ হয়।অভিযোগ বিয়ের পর থেকেই স্বামী সহ শ্বশুর বাড়ির লোকেরা পণের দাবী জানায়। গৃহবধূর উপর অত্যাচার শুরু করে। সেই সময় বাবার বাড়ি থেকে প্রায় ৮০ হাজার টাকার পণ সামগ্রি দেয়। তারপর আরো পনের দাবিতে গৃহবধূর ওপর চলতে থাকে অত্যাচার। অভিযোগ বৃহস্পতিবার রাতে স্বামী সহ শ্বশুর বাড়ির লোকেরা গৃহবধূকে মারধর করে শ্বাশরোধ করে খুন করে।তারপর ঝুলিয়ে দেয় ঘরে। খবর পেয়ে বাবার বাড়ির লোকেরা ছুটে আসে। চাঁচল থানায় খবর দিলে পুলিশ দেহটী উদ্ধার করে। ঘটনার পর থেকে পলাতক অভিযুক্তরা।তদন্তে চাঁচল থানার পুলিশ।

  • জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জেলার কৃতী ছাত্রছাত্রীদের সংবর্ধনা ও কাউন্সিলিং

    মালদা,৩১মেঃ  ইতিমধ্যে মাধ্যমিক,উচ্চ মাধ্যমিক ও মাদ্রাসা পরীক্ষায় বেশ ভাল সাফল্য  লাভ করেছে মালদা জেলার ছাত্রছাত্রীরা। আজ  মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক ও মাদ্রাসা পরীক্ষায় জেলার সমস্ত কৃতী ছাত্রছাত্রীদের  সংবর্ধনা দিল মালদা জেলা প্রশাসন। পাশাপাশি আয়োজন করা হয়েছিল কাউন্সিলিংযের। মালদা টাউন হলে এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠান ও  কাউন্সিলিংযের আয়োজন করা হয়। এদিনের এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জেলা শাসক কৌশিক ভট্টাচার্য, গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য স্বাগত সেন, মালদা জেলা পরিষদের মেন্টার কৃষ্ণেন্দু নারায়ন চৌধুরি,জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের চেয়ারম্যান আশিস কুন্ডু  জেলার বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ শক্তিপদ পাত্র সহ অনান্যরা। এদিন জেলার ৯২জন পড়ুয়াকে সংবর্ধনা ঞ্জাপন করা হয়। সংবর্ধনার পাশাপাশি সমস্ত পড়ুয়াদের কাউন্সিলিং করা হয়. তাদের আগামীদিনের দিশা দেখানো হয় এই কাউন্সিলিংযের মধ্য দিয়ে।  

  • মালদায় রক্তের সংকটমোচনে রক্ত দান শিবির

    মালদা,৩০ মেঃ মালদা জেলা ব্লাড ব্যাঙ্কে রক্তের সংকট দূর করার জন্য এগিয়ে এল  মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের ডাক্তাররা।  আজ মালদা  C M  O H II উদ্যোগে অফিস প্রাঙ্গণে গ্রীষ্মকালীন রক্তের সংকটমোচনে স্বেচ্ছায় রক্তদান শিবির অনুষ্ঠিত হয়। রক্ত দান করে শিবির সূচনা করেন ডাঃ অমিতাভ মন্ডল উপ মুখ্য স্বাস্থ্য অধিকারীক মালদা। আজকের শিবিরে 15 জন রক্ত দান করেন।

  • গৃহবধূকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে

    মালদা,৩০ মেঃ  গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে গৃহবধূকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টার অভিযোগ উঠল  স্বামীর বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত স্বামী কে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে ইংরেজবাজার থানার পুরাটুলি এলাকায়। জানা গেছে অগ্নিদগ্ধ ওই গৃহবধূর নাম সরস্বতী দাস। স্বামী শুভ দাস। তাদের দুই ছেলে মেয়ে রয়েছে। প্রায় দশ বছর হলো তাদের বিয়ে হয়। অগ্নিদগ্ধ গৃহবধূর বাপের বাড়ির অভিযোগ টুকটাক কারনেই মাঝে মধ্যে তাদের মেয়েকে মারধর করতো শুভ। বুধবার রাতে আবারো তাদের মেয়েকে মারধর করে, দরজা লাগিয়ে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় বলে অভিযোগ। পরে ওই গৃহবধূ চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে এসে দরজা ভেঙে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসে। বর্তমানে গৃহবধূর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে কলকাতা রেফার করা হয়েছে। এই ঘটনায় ইংলিশ বাজার থানা একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে অগ্নিদগ্ধ গৃহবধূর বাপের বাড়ির পক্ষ থেকে।