উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর

  • আদালত চত্তর থেকে পালিয়ে যাবার ঘন্টা খানেকের মধ্যে ফের ধরে নিলো বালুরঘাট পুলিশ

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ২৪ অক্টোবরঃ বালুরঘাট আদালতে আনা এক বিচারাধীন বন্দী আদালত চত্তর থেকে পালিয়ে যাবার ঘন্টা t মধ্যে ফের ধরা পড়ে যায়। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি বুধবার বালুরঘাট আদালতে ঘটে। জানা যায়, চুরির মামলায় ধৃত ওই বিচারাধীন বন্দীর নাম বিধান রায়। গতকাল বালুরঘাট শহর সংলগ্ন প্রিন্স ক্লাবের একটি চুরির ঘটনায় ধরা পড়েছিল সে। বুধবার তাঁকে বালুরঘাট আদালতে তোলা হলে সেখান থেকে পালিয়ে যায় সে। পরে পুলিস তাঁর খোঁজে তল্লাসী শুরু করলে বালুরঘাট আদালতের পেছন থেকেই তাকে ধরে ফেলে পুলিস। বিধানের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়ে আদালত। ‌

  • বিয়ের ৬ মাসের মধ্যেই গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী বালুরঘাটের গৃহবধু

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ২৩ অক্টোবর— বিয়ের ৬ মাসের মধ্যেই গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হলেন এক গৃহবধু। বালুরঘাট শহরের শান্তিময়ঘোষ কলোনী এলাকার ঘটনা। মঙ্গলবার সকালে পরিবারের লোকেরা ওই গৃহবধুর ঝুলন্ত দেহ দেখতে পান। খবর পেয়ে বালুরঘাট থানার পুলিস এসে মৃতদেহটি উদ্ধার করে নিয়ে যায়। পুলিস সু্ত্রে জানা যায়, মৃত ওই গৃহবধুর নাম সাথী দেবনাথ। বালুরঘাট শহর সংলগ্ন চক্‌ভৃগু গ্রাম পঞ্চায়েতের ডাকরা এলাকার বাসিন্দা সাথীর সঙ্গে প্রায় ৬ মাস আগে শান্তিময় ঘোষ কলোনী এলাকার বাসিন্দা অনিমেষ দেবনাথের বিয়ে হয়েছিল। সাথীর পরিবারের অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই সাথীর উপর নানাভাবে অত্যাচার চালাত জামাই সহ পরিবারের লোকেরা। প্রতিনিয়ত রাতে মদ্যপ অবস্থায় বাড়িতে ফিরে সাথীর উপর অত্যাচার চালাত। এমনকি সাথীকে বিষ খাইয়ে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে বালুরঘাট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন মৃতার পরিবারের লোকেরা। এদিন সকালে সাথীর মৃত্যুর খবর প্রতিবেশীদের কাছে শুনতে পেয়েই পরিবারের লোকেরা ছুটে আসেন সেখানে। পরে তারা বালুরঘাট থানায় গিয়ে পরিবারের লোকেদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। এমনকি এলাকার লোকজন বালুরঘাট থানায় এসে এই ঘটনায় জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সরব হন। অভিযোগের পরেই বালুরঘাট থানার পুলিস গ্রেপ্তার করে অনিমেষকে। বালুরঘাট থানার আইসি জানান, এই ঘটনায় অভিযোগের পরেই একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।

  • পৌরসভার শেষ দিনেও বালুরঘাটের বোর্ড মিটিং বয়কট করল বিরোধীরা

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ২৩ অক্টোবরঃ তৃণমূল পরিচালিত বালুরঘাট পৌরসভার মেয়াদ শেষের দিনও বিতর্ক পিছু ছাড়লনা। মংলবার পৌরসভার শেষ দিনেও বোর্ড মিটিং বয়কট করল বিরোধীরা। নোট-অফ-ডিফেন্ড দিয়ে কার্যত বোর্ড মিটিং বয়কট করে তারা। অপরদিকে বালুরঘাট শহর বালুরঘাট শহর মন্ডল এসসিএসটির পক্ষ থেকে অভিনব কায়দায় বিরোধ জানানো হয়। বিদায়ি চেয়ারম্যানকে সংবর্ধনা জানানো হয়। তবে ভাল কাজের জন্য নয়। রাজ্যের মধ্যে দুর্ণিতে শীর্ষে থাকার জন্য। এরই মধ্যে পৌরসভার দায়িত্ব তুলে দেওয়া হল বালুরঘাট সদর মহকুমা শাসক ঈশা মূখার্জীকে। মঙ্গলবার ছিল বালুরঘাট পৌরসভা পরিচালনার শেষ দিন। এদিন কাউন্সিলারদের বোর্ড মিটিং এর পরে বালুরঘাট পুরসভার বিদায়ী পৌরাধ্যক্ষ রাজেন শীল বালুরঘাট সদর মহকুমা শাসক ঈশা মূখার্জীর হাতে দায়িত্বভার তুলে দেন। পুরসভার নির্বাচন না হওয়া পর্যন্ত প্রশাসনের হাতেই থাকবে এই পুরসভার দায়িত্ব। এদিন পুরসভার তরফে বিদায়ী কাউন্সিলারদের সম্বর্ধনা জানানো হয়েছে। যদিও তৃণমূল পরিচালিত এই পুরসভার মেয়াদের শেষ দিনেও বিজেপির তরফে বালুরঘাট পুরসভার সামনে বিক্ষোভ দেখানো হয়। বিজেপির অভিযোগ, এই পুরসভা এবারে দুর্নীতিতে সারা রাজ্যে প্রথম হয়েছে। পুরসভার এই গৌরবময় কৃতিত্বকে তুলে ধরতে ও তাদের সাফল্যকে স্বীকৃতি জানাতে এদিন ট্রফিও দেওয়া হয় পুরসভাকে। পুরসভার দায়িত্ব নেবার পরেই বালুরঘাট সদর মহকুমা শাসক ঈশা মূখার্জী জানান, নতুন করে নির্বাচনের মাধ্যমে পুরসভার ক্ষমতা দখল না হওয়া পর্যন্ত প্রশাসন দেখভাল করবে । পুরবাসীয় যাবতীয় সমস্যার সমাধানে প্রশাসনের তরফে সাধ্যমতো চেষ্টা করা হবে। গত কয়েকদিন আগেই রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন দপ্তরের তরফে বালুরঘাট পুরসভার মেয়াদ এ মাসের ২৩ তারিখে শেষ হবার নির্দেশ জানানো হয়। সেইমতো তড়িঘড়ি করে বালুরঘাট পুরসভা বাড়ি বাড়ি পরিশ্রুত পানীয় জল প্রকল্পের সূচনা করেন সোমবার। যদিও এই প্রকল্প পূর্ণাঙ্গরুপে চালু করতে না পেরে কেবলমাত্র বালুরঘাট বুড়াকালী মন্দিরেই জল সংযোগ দেওয়া হয়েছে। দীর্ঘ বাম পরিচালিত বালুরঘাট পুরসভার গত পুর নির্বাচনে তৃণমূল জয়লাভ করে পুরবোর্ড গঠন করে। পুরসভার মোট ২৫ টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১৪ টিতে তৃণমূল জয়লাভ করেছিল । পুরসভার চেয়ারম্যান হয়েছিলেন চয়নিকা লাহা। কিন্তু বছর খানেক বাদেই তার মৃত্যু হলে দীর্ঘদিন পৌরাধ্যক্ষ ছাড়াই চলে এই পুরসভা। গত প্রায় ২ বছর আগে চেয়ারম্যানের দায়িত্বে আসেন রাজেন শীল। ক্ষমতায় আসার পরে তার একাধিক উন্নয়নের পাশাপাশি নানা দুর্নীতির বিষয়েও মুখ খোলেন বিরোধীরা থেকে পুরবাসীরা। রাজেন শীল জানান, গত ৫ বছরের পুরবোর্ডের মধ্যে তিনি মাত্র ২ বছর দায়িত্বে ছিলেন। এই সময়ের মধ্যে তিনি চক্‌ভৃগু গ্রাম পঞ্চায়েতের কয়েকটি মৌজাকে বালুরঘাট পুরসভার অন্তর্ভুক্তি করানো, গ্রীন সিটি প্রকল্পে শহরের সৌন্দর্য্যায়নের কাজ ও বাড়ি বাড়ি পানীয় জল সরবরাহের কাজ প্রায় শেষ করেছেন। তবে আগামীতে ফের ক্ষমতায় এলে শহরকে ঢেলে সাজানো হবে বলে তিনি জানান। ‌

  • সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে তোলা আদায়ের সময় ধৃত এক

    বালুরঘাট, ২২ অক্টোবর - সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে তোলা আদায়ের সময় হাতেনাতে ধরা পরল এক যুবক। বালুরঘাট শহরের চকভবানী এলাকার বাসিন্দা ওই যুবকের নাম শিবু লাহা(৩৭)। বালুরঘাট শহরের হিলি মোড় এলাকা থেকে শিবু লাহাকে হাতেনাতে ধরে ফেলে। সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে বালুরঘাট সহ জেলার বিভিন্ন এলাকার ব্যবসায়ীদের ভয় দেখিয়ে তোলা আদায়ের অভিযোগ জমা পরেছিল বালুরঘাট থানায়। কিছুদিন আগেও কামারপাড়া এলাকার এক ব্যবসায়ী সুদেব বর্মনের কাছ থেকে প্রায় চল্লিশ হাজার টাকা আদায়ের অভিযোগ ওঠে। এদিন শিবু লাহার পাশাপাশি দেব দুলাল দাস ও শুধাংশু সাহার নামও এই চক্রের পান্ডা হিসাবে উঠে আসে। জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে অভিযোগ পাবার পরেই এদিন সাংবাদিক ও পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে বালুরঘাট শহরের মঙ্গলপুর এলাকা থেকে শিবু লাহাকে গ্রেপ্তার করে। উত্তর দিনাজপুর জেলার একটি সাপ্তাহিক সংবাদপত্রের সাংবাদিক বলে পরিচয় দিতেন তিনি। ঘটনার সঙ্গে যুক্ত থাকায় দেবদুলাল দাস ও শুধাংশু সাহা সহ মোট তিনজনের একটি চক্রের হদিশ পায় পুলিশ। তাদের খোঁজেও পুলিশের পক্ষ থেকে তদন্ত শুরু করেছে। সুদেব বর্মন সহ তার মা শোভারাণী বর্মন জানান, কিছুদিন আগে জোর করে আমার বাড়িতে গিয়ে টাকা আদায় করে। এরপরেও আমাকে নিরন্তর হুমকি দিতে থাকে। এদিন মাসিক চুক্তি করে টাকা নেবে বলে আমাদের ডেকেছিল। এরপর পুলিশকে খবর দিলে তারাই শিবু লাহাকে গ্রেফতার করে। জেলা পুলিশ সুপার প্রসূন ব্যানার্জী জানান, ঘটনার তদন্ত করে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  • ডিজে বাজানোর প্রতিবাদ করায় শিক্ষক দম্পতির বাড়িতে ঢুকে হেনস্থা

    অজয় সরকার, বালুরঘাট ২১ অক্টোবরঃ তারস্বরে রাতে ডিজে বাজানোর প্রতিবাদ করায় এক শিক্ষক দম্পতির বাড়িতে ঢুকে অত্যাচার করার অভিযোগ উঠল বালুরঘাট চকভৃগু এলাকার একটি ক্লাবের সদস্যদের বিরুদ্ধে। রবিবার বালুরঘাট থানায় অভিযোগ জানানোর পরেও পুলিসের তরফে কোনো ব্যবস্থাই নেওয়া হয়নি বলে ওই পরিবারের সদস্যরা এদিন পুলিসের বিরুদ্ধে সরব হন। জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরেই বালুরঘাটের চকভৃগু অরবিন্দ পল্লী এলাকায় বাস করেন প্রকাশ নাথ জোয়াদ্দার (৭৭) । প্রকাশ বাবুর ছেলে শংকর জোয়াদ্দার ও বৌমা পায়েল সরকার দুজনেই শিক্ষকতা করেন। শংকর জানায়, বাবা হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত। গত কয়েক দিন ধরেই বাড়ির পাশে স্থানীয় অরবিন্দ ক্লাবে ডিজে বাজানো চলছিল। শনিবার রাত সাড়ে দশটা নাগাদ ডিজে র শব্দে অতিষ্ট হয়ে স্ত্রীর পায়েল ফেসবুকে নিজের সমস্যার কথা জানান। এরপরেই রাত ১২ টা নাগাদ কয়েক জন তার বাড়িতে প্রথমে ঢিল ছুঁড়তে থাকে। এরপরে বাড়িতে ঢুকে দরজার গ্রিল ধরে ধাক্কাধাক্কি ও প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিতে থাকে। তাঁর অভিযোগ, তার স্ত্রীর পায়েল এবারে বালুরঘাট পঞ্চায়েত সমিতির বিজেপির সদস্য হিসাবে নির্বাচিত হয়েছেন। অন্যদিকে অরবিন্দ ক্লাবের সম্পাদক নিজে তৃণমূল নেতা। চন্দন চৌহান নামে ওই ব্যক্তি এবারে চকভৃগু গ্রাম পঞ্চায়েত থেকে জয়লাভ করে গ্রাম সংসদের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। এমনকি প্রধান পদে তিনি টসে হেরে যান। তার চাপেই পুলিস কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না। যদিও তার বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে চন্দন জানায়, শনিবার রাতে ছেলেরা পটকা ফাটাচ্ছিল। ডিজে বাজানো বা তাদের বাড়িতে চড়াও হবার অভিযোগ অসত্য। তাদের ক্লাবের ছেলেরা কোনো ভাবেই যুক্ত নয়।

  • তলিয়ে যাবার ২৪ ঘন্টা পরেও স্কুল ছাত্রের দেহ উদ্ধার করতে পারল না বালুরঘা প্রশাসন।

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ২১ অক্টোবরঃ আত্রেয়ী নদীতে স্নান করতে নেমে তলিয়ে যাবার ২৪ ঘন্টা পরেও ওই স্কুল ছাত্রের দেহ উদ্ধার করতে পারল না জেলা প্রশাসন। এই ঘটনার প্রতিবাদে রবিবার সকালে স্থানীয় লোকজন মাহিনগর এলাকায় ৫১২ জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। খবর পেয়েই বালুরঘাট থানার এক বিশাল পুলিস বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে। সকালে বালুরঘাটের বিডিও সুস্মিতা সুব্বা নিজেও সেখানে গিয়েছিলেন। পুলিস ও প্রশাসনের ততপরতায় এদিন রায়গঞ্জের কসবা থেকে ডুবুরি আনা হয়েছে। রাতে আত্রেয়ী নদী সংলগ্ন এলাকায় হ্যালোজেন বাতি লাগিয়ে উদ্ধারের চেস্টা চলছে। তবে সন্ধ্যে পর্যন্ত তৃতীয় শ্রেণীর ওই স্কুল ছাত্রের দেহ উদ্ধার করতে পারেনি। শনিবার দুপুরে জামাইবাবুর সঙ্গে স্নান করতে গিয়ে ছিল দেব হাজাম (৯) সহ আরও তিনজন। নদীতে সকলেই তলিয়ে গেলেও স্থানীয় মিলন সরকার নামে এক শিক্ষক বিষয়টি বুঝতে পেরে তিনজনকে উদ্ধার করে। কিন্তু দেবকে উদ্ধার করতে পারেন নি তিনি। ঘটনার পর স্থানীয় বাসিন্দারা ওই কিশোরের খোজে নিজেরাই তল্লাসী শুরু করে। পুলিস ও বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের কর্মীরা ঘটনার অনেক প্প্রে সেখানে পৌঁছে হাত লাগায়। পরে তল্লাসীর কাজ শুরু হয়। পুলিস ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিখোঁজ হওয়া ওই কিশোর দেব হাজাম (৯) মাহিনগর প্রাইমারি স্কুলের তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র ছিল। শনিবার দুপুর বারোটা নাগাদ জামাইবাবু ও আরও তিন ভাই বোনের সঙ্গে মাহিনগর এলাকায় আত্রেয়ী নদীতে স্নান করতে গেলে এই দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে শনিবার বালুরঘাট সদর মহকুমা শাসক ইশা মুখার্জী সেখানে গিয়েছিলেন। বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের পক্ষ থেকে ডুবুরি ও বোট নামানো হলেও রাত পর্যন্ত ওই বালকের খোজ মেলেনি। এর প্রতিবাদেই এদিন সকাল থেকে রাস্তায় বেঞ্চ লাগিয়ে অবরোধ করে স্থানীয়রা। পরে ফের তল্লাসি শুরু হয়েছ!

  • বিজয়ার দিনেই বিষাদ আত্রেয়ী পারে, তলিয়ে গেল তৃতিয় শ্রেনির ছাত্র

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ২০ অক্টোবরঃ জামাইবাবুর সংগে নদীতে স্নান করতে গিয়ে জলে তলিয়ে গেল এক বালক। যদিও স্নান করতে গিয়ে আরও তিনজন তলিয়ে গেলেও স্থানীয় এক শিক্ষক মিলন সরকার বিষয়টি বুঝতে পেরে তিনজনকে উদ্ধার করে। কিন্তু বালককে উদ্ধার করতে পারে না। ঘটনার পর স্থানীয় বাসিন্দারা ওই কিশোরের খোজে নিজেরাই তল্লাসী শুরু করে। পুলিশ ও y মোকাবেলা দফতর ঘটনার অনেক পর ওই এলাকায় পৌছলে স্থানীয় বাসিন্দারা তাদের ঘিরে বিক্ষোভ দেখায়। পরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে তল্লাসীর কাজ শুরু হয়। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিখোঁজ হওয়া ওই কিশোরের নাম দেব হাজাম(৯)। মাহিনগর প্রাইমারি স্কুলের তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র ছিল সে। শনিবার দুপুর বারোটা নাগাদ জামাইবাবু ও আরও তিন ভাই বোনের সংগে মাহিনগর এলাকায় আত্রেয়ী নদীতে স্নান করতে গেলে এই বিপত্তি ঘটে। খবর পেয়ে বালুরঘাট থানার পাশাপাশি বালুরঘাট সদর এসডিও ইশা মুখার্জী ঘটনাস্থলে পৌছায়। বিপর্যয় মোকাবেলা দফতরের পক্ষ থেকে ডুবুরি ও বোট নামানো হলেও সন্ধ্যে পর্যন্ত ওই বালকের খোজ মেলেনি। দেব হেমরমের সংগে স্নান করতে যাওয়া তার দিদি নিকিতা হাজাম বলেন, এক সংগে পাচ জন মিলে জামাইবাবুর সংগে স্নান করতে গিয়েছিলাম। একটু দূরে যেতেই নদীর স্রোত বাড়তে থাকে। সেসময় জামাইবাবু বাচাতে আসে। কিন্তু সে নিজেও সাতার জানেনা। কিছু পরে অন্য এক ব্যাক্তি আমাদের উদ্ধার করলেও ছোট ভাইকে উদ্ধার করতে পারেনি। সে কোথায় হারিয়ে গেল বুঝতেই পারছি না। এসডিও ইশা মুখার্জী জানান, নিখোজের খোজে তল্লাসী চালানো হচ্ছে।

  • বালুরঘাটে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড : পুড়ে গেল সিনেমা হল সহ তুলোর গোডাউন

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ১৭ অক্টোবরঃ ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে পুড়ে ছাই হয়ে গেল সিনেমা হল  তুলোর গোডাউন। বুধবার সকালে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বুনিয়াদপুর রসিদপুর এলাকার ঘটনা। এদিন সকালে স্থানীয় ওই সিনেমা হলের পাশে একটি তুলোর গোডাউনে প্রথম আগুন দেখতে পায় স্থানীয় বাসিন্দারা। মুহুর্তের মধ্যে আগুন ছড়িয়ে পরে পাশের সিনেমা হলে। ঘটনার খবর পেয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে দমকলের একটি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে পৌছায়। বংশীহারী থানার পুলিশও ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন আগুনে প্রচুর ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, এদিন সকালে সবাই যখন অষ্টমীর অঞ্জলি দিতে ব্যস্ত ঠিক সেই সময় বুনিয়াদপুরের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের রসিদপুর এলাকায় দাউ দাউ করে আগুন জ্বলতে দেখেন স্থানীয় লোকজন। এলাকায় থাকা একটি তুলোর গোডাউন থেকেই ওই আগুনের সুত্রপাত বলে মনে করছেন দমকল কর্তৃপক্ষ। তুলোর গোডাউন থেকে লাগা ওই আগুন মুহুর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে পাশেই থাকা উওরা সিনেমা হলে। দাউ দাউ করে জ্বলতে থাকা ওই আগুনে মুহুর্তের মধ্যেই ভস্মীভূত হয়েছে ওই গোডাউন ও সিনেমা হলের বেশিরভাগ অংশই। যদিও পরে দমকলের একটি ইঞ্জিন পৌঁছে দীর্ঘ পাঁচ ঘন্টার চেষ্টার পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে। ঘটনার খবর পেয়ে এলাকায় ছুটে আসে বংশীহারি থানার বিরাট পুলিশ বাহিনীও। দমকলের প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, তুলোর ওই গোডাউনে থাকা কিছু দাহ্য বস্তু থেকেই আগুনের সুত্রপাত। এদিকে ওই তুলোর গোডাউনটির বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন এলাকা পরিদর্শনে যাওয়া বুনিয়াদপুর পুরসভার চেয়ারম্যান অখিল বর্মন। তিনি বলেন, দমকলের তৎপরতায় বড়সড় অগ্নিকান্ডের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে এলাকার মানুষ। তবে কোনোরকম সরকারি অনুমতি ছাড়া কিভাবে এলাকায় ওই তুলোর গোডাউনটি চলছিল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এলাকার বাসিন্দা বরেন হালদার বলেন, অষ্টমীর অঞ্জলি দেবার সময় এমন আগুনের ঘটনা তাদের সামনে আসে। এলাকায় থাকা একটি তুলোর গোডাউন ও একটি সিনেমা হল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। পুলিশ ও দমকলকর্মীরা এলাকায় এসে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেছে। তবে ঠিক কি কারণে আগুন লাগল তা আমরা জানি না।

  • এলাকরা দুঃস্থ বয়স্কা মহিলাদের মধ্যে বস্ত্র বিতরণ রোটারী ক্লাবের

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ১৭ অক্টোবরঃ বুধবার অষ্টমীর দিনে বালুরঘাট রোটারি ক্লাবের উদ্যোগে এলাকরা দুঃস্থ বয়স্কা মহিলাদের মধ্যে বস্ত্র বিতরণ করা হয়। বস্ত্র বিতরণের পাশাপাশি মধ্যাহ্নকালীন আহারও দেওয়া হয়। এদিন দুপুরে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাট শহরের বালুরঘাট ক্লাব সংলগ্ন এলাকায় এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। এদিন প্রায় ছয়শ দুঃস্থ মহিলাকে বস্ত্র প্রদান করা হয়। বালুরঘাট রোটারি ক্লাবের সদস্য কমলেশ আগারওয়ালা ও সভাপতি পবন কুমার গোয়েনকা জানান, আমরা রোটারি ক্লাবের পক্ষ থেকে একটি অনুষ্ঠান করে এলাকার দুঃস্থ, অসহায় ও বয়স্কা মহিলাদের হাতে এদিন নতুন বস্ত্র তুলে দিতে পেরে আমরা ভীষণ খুশি । অনুষ্ঠান শেষে মধ্যাহ্নকালীন কিছু আহারের ব্যবস্থা করা হয়।

  • উত্তর দিনাজপুরে আনুমানিক ৫ কোটি টাকার ব্রাউন সুগার সহ পাচারকারী গ্রেপ্তার

    Newsbazar 24 ডেস্ক, ১৫ অক্টোবর : উত্তর দিয়াজপুর জেলার চাকুলিয়া থানার কানকি বাসস্ট্যান্ড এলাকা  থেকে ১৭টি ব্রাউন সুগারের প্যাকেট সহ এক মাদক পাচারকারীকে  গ্রেপ্তার করল পুলিশ। ধৃত পাচারকারীর নাম  ডালিম শেখ। তার  বাড়ী মুর্শিদাবাদের নতুনগ্রামে ।পুলিশ তাকে আজ ইসলামপুর মহকুমা আদালতে পেশ করেছে এবং  তাকে  ১৪ দিনের জন্য পুলিশি হেপাজতে নেওয়ার আবেদন  করেছে।    জেলা পুলিশ সূত্রে জানা যায়  "গোপন সূত্রে খবর পেয়ে উত্তর দিনাজপুর জেলার চাকুলিয়া থানার পুলিশ কানকি বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে ১৭টি ব্রাউন সুগারের প্যাকেট সহ এক মাদক পাচারকারীকে গ্রেপ্তার করে।  সে ব্রাউন সুগার নিয়ে শিলিগুড়ি যাচ্ছিল। ধৃতের কাছ থেকে ১.৭ কেজি ব্রাউন সুগার উদ্ধার করা হয়েছে। আন্তর্জাতিক বাজারে যার আনুমানিক মূল্য পাঁচ কোটি টাকার উপরে। প্রাথমিকভাবে অনুমান বাংলাদেশ থেকে নিয়ে এসে পাচার করা হচ্ছিল। ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে এই ঘটনায় বাকি কেউ জড়িত আছে কি না তা জানার চেষ্টা করছে পুলিশ।