উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর

  • রায়গঞ্জের রূপাহারের মহিষবাতান এলাকায় ক্ষতবিক্ষত মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য

    newsbazar24: উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জের রূপাহারের মহিষবাতান এলাকায় এক অজ্ঞাত ব্যক্তির ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল। একাধিক ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে মৃতদেহের শরীরে। প্রাথমিকভাবে পুলিশের অনুমান, কোনও ব্যক্তিগত শত্রুতার কারণেই খুন করা হয়েছে ওই ব্যক্তিকে। খুনের পর প্রমাণ লোপাটের জন্য ক্ষতবিক্ষত করে দেওয়া হয় দেহ। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, এদিন সকালে বাড়ি থেকে কাজের জন্য বের হবার সময় মহিষবাতান এলাকায় চাষ জমিতে রক্তাক্ত অবস্থায় দেহটি পড়ে থাকতে দেখেন তাঁরা।সঙ্গে সঙ্গেই পুলিশকে খবর দেওয়া হলে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে। দেহ উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।

  • উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দফতরের অর্থানুকূল্যে হিলি সীমান্তে নতুন ট্রাক টার্মিনাস তৈরী হচ্ছে।

    ডেস্ক,বালুরঘাট, ২৮ নভেম্বর,অজয় সরকারঃ  হিলি সীমান্ত দিয়ে আন্তর্জাতিক  বহির্বানিজ্য বৃদ্ধির লক্ষ্যে হিলি ট্রাক টার্মিনাস নতুন করে তৈরীর উদ্যোগ নিল উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দফতর। বেহাল এই ট্রাক টার্মিনাস উন্নতির লক্ষ্যে ওই ট্রাক টার্মিনাস পরিদর্শন করেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দফতরের প্রিন্সিপ্যাল সেক্রেটারি বরুন কুমার রায়। প্রাথমিকভাবে আট কোটি টাকা ব্যায়ে ট্রাক টার্মিনাসকে নতুনভাবে সাজানো হবে। প্রিন্সিপ্যাল সেক্রেটারির পাশাপাশি দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা শাসক দীপাপ প্রিয়া পি ও হিলি ব্লক সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক সঞ্জয় সুব্বা সহ জেলা প্রশাসনের অন্যান্য আধিকারিকরা উপস্থিত উপস্থিত ছিলেন। জেলা প্রশাসনের পাঠানো রিপোর্টের ভিত্তিতেই প্রিন্সিপ্যাল সেক্রেটারি বেহাল ওই ট্রাক টার্মিনাস দেখতে যান। বর্তমানে ট্রাক টার্মিনাসে তিনশটি ট্রাক রাখার ব্যবস্থা ছিল। নতুন করে টার্মিনাস তৈরীর পর আরও ১৫০ টি ট্রাক বেশী রাখার ব্যবস্থা হবে। পাশাপাশি নতুন করে ড্রাইভারদের থাকার ব্যবস্থা, স্টোরেজ বিল্ডিং, পার্কিং শেড, ওয়ে-ব্রীজ, সোলার লাইট সিস্টেম সহ অত্যাধুনিক মানের পার্কিং তৈরী করা হবে বলে প্রশাসন সূত্রে জানা যায়। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা শাসক দীপাপ প্রিয়া পি জানান, হিলি সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশ-ভারত বহির্বানিজ্য বৃদ্ধির জন্য পার্কিং ব্যবস্থার উন্নয়ন দরকার। এর আগে পার্কিং-এর উন্নয়নের জন্য উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দফতরে রিপোর্ট পাঠানো হয়েছিল। এদিন প্রিন্সিপ্যাল সেক্রেটারি টার্মিনাস পরিদর্শন করে। এরপরই তিনি একথা ঘোষণা করেন। আগামী এক মাসের মধ্যেই কাজ শুরু হবে বলে আশা করা যায়। (ছবিতে হিলি সীমান্তে  অস্থায়ী ট্রাক টার্মিনাস)

  • প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের অশ্লীলতার দায়ে শিক্ষক গ্রেপ্তার

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ২০ নভেম্বরঃ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের দিয়ে অশ্লীল   কাজ করানোর দায়ে এক শিক্ষককে গ্রেপ্তার করল কুমারগঞ্জ থানার পুলিস। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কুমারগঞ্জের ঝারা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ঘটনা। অভিযুক্ত ওই শিক্ষকের নাম মিন্টু সেন। বাড়ি বালুরঘাট শহরের চকভৃগু এলাকায়। সোমবার ওই শিক্ষককে হাতেনাতে ধরে পুলিসের হাতে তুলে দেয় বিদ্যালয়ের অভিভাবকরা। জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরেই ওই শিক্ষক ছাত্রীদের দিয়ে অশ্লীল কাজ করিয়ে নিচ্ছিল। কয়েকমাস আগে বিষয়টি জানতে পেরে অভিভাবকরা ওই কীর্তিমান শিক্ষককে সাবধান করে দিয়েছিল। কিন্তু তাতে কোনো কাজ হয়নি। গত বুধবার ছাত্রীরা বাড়িতে গিয়ে তাদের সঙ্গে ফের ওই শিক্ষকের দুর্ব্যহারের কথা জানালে অভিভাবকরা ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। সোমবার ওই শিক্ষক বিদ্যালয়ে এসে ফের কূকর্ম শুরু করলে তাঁকে হাতেনাতে ধরে ফেলে অভিভাবকরা। এরপরেই কুমারগঞ্জ থানায় খবর দিলে পুলিস এসে অভিযুক্ত ওই শিক্ষককে গ্রেপ্তার করে। বিদ্যালয়ের অভিভাবক মদন টিগ্গা জানান, বালুরঘাটের বাসিন্দা ওই শিক্ষক আগেও ছাত্রীদের নিয়ে কুকর্ম করিয়ে নিত।  বিষয়টি জানার পরেই তাঁকে সাবধান করা হয়েছিল। কিন্তু কয়েকমাস পরে ফের এসব অশ্লীল কাজ শুরু করলে এদিন তাঁকে হাতেনাতে ধরা হয়। পরে তাঁকে কুমারগঞ্জ থানার পুলিসের হাতে তুলে দেওয়া হয়।  ধৃত ওই শিক্ষককে গ্রেপ্তারের পরে বালুরঘাট আদালতে পাঠানো হয়েছে। কুমারগঞ্জ থানার ওসি সুদীপ্ত দাস জানান, নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে এক স্কুল শিক্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত করে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

  • দক্ষিন দিনাজপুরের বিভিন্ন জায়গায় বিজেপি কর্মীদের পথ অবরোধ, পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তি উত্তেজনা।

    Newsbazar 24, ডেস্ক, বালুরঘাট, ১৯ নভেম্বর : গতকাল ডানকুনিতে বিজেপির রাজ্য  সভাপতি দিলীপ ঘোষ, জয় বন্দ্যোপাধ্যায় সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দের  উপর হামলার প্রতিবাদে বিজেপির রাজ্য কমিটির ডাকে আজ সারা রাজ্যে চলেছে  মিছিল ও অবরোধ। তারই অঙ্গ হিসাবে আজ দক্ষিন দিনাজপুরের বিভিন্ন জায়গায়    পথ অবরোধ করেন জেলা বিজেপির-র কর্মী, সমর্থকরা। পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়েন তারা। গঙ্গারামপুরে জাতীয় সড়ক অবরোধ করে জেলা বিজেপির-র কর্মী, সমর্থকরা। বাধা দিলে পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তি হয়। অভিযোগ, পুলিশের ব্যারিকেড ভাঙে বিজেপির কর্মীরা। পরে অবরোধ তুলে দেয় পুলিশ। অবরোধের জেরে আটকে পরে দূরপাল্লার বহু গাড়ি। পরে অবরোধ উঠে গেলে শুরু হয় যান চলাচল। অন্যদিকে আজ দুপুরে হিলি মোড়ে বিজেপির অবরোধ শুরু হয়। আগে থেকেই   ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন  ডিএসপি হেডকোয়ার্টারস ধীমান মিত্রের নেতৃত্বে পুলিশ। অবরোধ তুলতে গেলে শুরু হয় ধস্তাধস্তি। অভিযোগ, পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে রাস্তায় শুয়ে পড়েন দলের জেলা সভাপতি শুভেন্দু সরকার। পুলিশ তাঁকে চ্যাংদোলা করে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে যায়।

  • বালুরঘাট শহরে দুঃসাহসিক চুরির ঘটনা

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ১৭ নভেম্বরঃ বালুরঘাট শহরের নারায়নপুর  বিশ্বভারতী ক্লাব পাড়া এলাকায় দুঃসাহসিক চুরির ঘটনা ঘটল। গতকাল দুপুরে রনজিৎ লালা নামে ওই বাড়ির মালিক ঘরের সমস্ত মালপত্র লন্ডভন্ড অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। জানা যায়, রনজিৎ লালা নামে ওই ব্যক্তি ছটপূজা উপলক্ষ্যে দু-‌দিন আগে পরিবার নিয়ে তাঁর এক নিকটাত্মীয়ের বাড়িতে রায়গঞ্জে গিয়েছিলেন। এদিন বিকালে বাড়িতে ফিরে দেখেন বাড়ির জানালা ভেঙ্গে জানায়, ভেতরে ঢুকে ৬ ভরি সোনার গহনা, রুপার গহনা ও নগদ ১০ হাজার টাকা সহ বহু জিনিষ চুরি করে নিয়ে গেছে দুষ্কৃতীরা। বাড়ির সমস্ত মালপত্র ছড়ানো ছিটানো অবস্থায় পড়েছিল। বিকালে খবর দিতেই বালুরঘাট থানার পুলিস সেখানে ছুটে আসে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।

  • বালুরঘাট কলকাতা তেভাগা এক্সপ্রেসে বাতানুকূল দ্বিতীয় শ্রেণীর বসার কামরা চালু হতে চলেছে।

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ১৭ নভেম্বরঃ প্রায় দেড় বছর পরে ফের বালুরঘাট  কলকাতা তেভাগা এক্সপ্রেসে বাতানুকূল দ্বিতীয় শ্রেণীর বসার কামরা চালু হতে চলেছে। এ মাসের ১৮ তারিখ থেকে কলকাতা থেকে চালু হবে এই এসি চেয়ার কার কামরা ও ১৯ তারিখ থেকে বালুরঘাট থেকে চলবে তা। শুক্রবার থেকেই এই বাতানুকূল কামরার বুকিং শুরু হয়েছে। দীর্ঘ আন্দোলনের পরে গতবছর ৪ মে কলকাতা থেকে প্রথম বালুরঘাটগামী তেভাগা এক্সপ্রেসে এই কামরা চালু হয়েছিল।  প্রতিদিন ভোর সাড়ে ৫ টায় বালুরঘাট থেকে ছেড়ে তা দুপুর আড়াইটে নাগাদ কলকাতা স্টেশনে পৌঁছায়, একইভাবে কলকাতা স্টেশন থেকে প্রায় দুপুর একটা নাগাদ ছেড়ে তা রাত্রি সাড়ে দশটা নাগাদ বালুরঘাটে পৌঁছায়। যেহুতু দিনের বেশিরভাগ সময়ে ট্রেনটি যাতায়াত করে, সেকারণে এই ট্রেনে একটি এসি কামরার দাবি ছিল দীর্ঘদিনের। সেই দাবি মেনে গতবছর মে মাসে তা চালু হলেও মাত্র দুমাসের মধ্যেই তা ফের বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। সে সময় ফের আন্দোলনে নেমেছিল রেল উন্নয়নের একাধিক কমিটি। কিন্তু এসি কামরার অপ্রতুলতার যুক্তি দেখিয়ে তা প্রায় এক বছর ৪ মাস বন্ধ ছিল। অবশেষে সোমবার থেকে তা বালুরঘাট থেকে চলবে। রেলের এই ঘোষণায় খুশি বালুরঘাটবাসী। একলাখি বালুরঘাট রেলযাত্রী কল্যান ও সমাজ উন্নয়ন সমিতি-‌র চেয়ারম্যান স্মৃতিশ্বর রায় জানান, কাউকে না জানিয়ে গত বছর জুলাই মাসের ৫ তারিখ থেকে তেভাগা এক্সপ্রেসে বাতানুকূল কামরা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। এর প্রতিবাদ জানিয়ে রেল দপ্তরে চিঠি পাঠানো হয়েছিল সে সময়। পরবর্তীতে রেলের একাধিক পদস্থ আধিকারিকরা বালুরঘাট স্টেশন পরিদর্শনে এলেই তাদের কাছে ফের এসি কামরা চালুর দাবি জানানো হয়েছিল। ফের তা চালু হওয়ায় আমরা আনন্দিত বলে স্মৃতিশ্বর রায় জানান।

  • বালুরঘাটে হাইড্রেন থেকে মৃতদেহ উদ্বার

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ১৭ নভেম্বরঃ বালুরঘাট পুরসভার যোগমায়া এলাকার হাইড্রেনে এক  ব্যক্তির  মৃতদেহ পড়ে থাকার ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল। শুক্রবার সকালে এলাকার বাসিন্দারা ওই ড্রেনের ভেতরে মৃতদেহটি পড়ে থাকতে দেখেন। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, মৃত ওই ব্যক্তির নাম বিনয় মন্ডল। বালুরঘাট পুরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের শীতলাতলা এলাকার বাসিন্দা সে। বিনয় মন্ডলের পরিবারের অভিযোগ, তাঁকে খুন করে হত্যা করা হয়েছে। এদিন সকালে খবর পেয়েই পুলিস এসে মৃতদেহটি উদ্ধার করে নিয়ে যায়। স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, শহরের ৮ নং ওয়ার্ডের ইনক্লাব পাড়ায় গতকাল রাতে এক জলসার আয়োজন করা হয়েছিল। রাতে সেখানে মদ্যপান করে বিনয় মন্ডল নামে ওই ব্যক্তি। সকালে ৯ নং ওয়ার্ডের যোগমায়া পাড়া এলাকার হাই ড্রেন থেকে মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে। বালুরঘাট পুরসভার ওই ওয়ার্ডের কাউন্সিলার শঙ্কর দত্ত জানান, কিভাবে ওই ব্যক্তির মৃত্যু হল তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।

  • বালুরঘাট হাসপাতালে এক প্রসূতির সদ্যজাত সন্তানের ডান কান কাটা নিয়ে উত্তেজনা ।

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ১৫ নভেম্বরঃ বছর কয়েক আগে বালুরঘাট জেলা হাসপাতালে এক সদ্যজাত-র আঙ্গুল কাটার ঘটনায় তোলপাড় উঠেছিল রাজ্যজুড়ে। খোদ মুখ্যমন্ত্রীকেও হস্তক্ষেপ করতে হয়েছিল সে সময়। বালুরঘাট থেকে সরকারী গাড়িতে করে চিকিৎসার জন্য ওই শিশুকে কলকাতায় নিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি ওই শিশুর বাবাকে সরকারী চাকরী দিয়েছিলেন সে সময়। বছর ঘুরতে না ঘুরতে ফের বালুরঘাট সরকারী হাসপাতালে ভর্তি এক প্রসূতির সদ্যজাত সন্তানের ডান কান কাটা নিয়ে বৃহস্পতিবার দিনভর উত্তেজনা রইল। আদৌ ওই শিশুপুত্রের কান কাটা গেছে কিনা তা নিয়ে ধন্দে রয়েছেন আদিবাসী সংগঠনের নেতারা ও ওই গ্রামের লোকজন। এদিন দুপুরেই ওই সদ্যজাত শিশুপুত্রের বাবা লিখিতভাবে জানান যে তাঁর সন্তানের ডান কান কাটার ভুল তথ্য বলিয়ে নেওয়া হয়েছিল। ঘটনার সুত্রপাত বুধবারে। এদিন সন্ধ্যায় দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার হিলি ব্লকের পাঞ্জুল গ্রাম পঞ্চায়েতের বানোরা গ্রামের বাসিন্দা অসীম উরাও এর স্ত্রী সূর্যমনি উরাও প্রসব যন্ত্রনা নিয়ে জেলা হাসপাতালে ভর্তি হন। কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রশান্ত সরকার এদিন রাতেই সিজার করেন। জানা যায়, রাতে সূর্যমনি উরাও পুত্র সন্তানের জন্ম দেন। কিন্তু সদ্যজাত সন্তানের ডান কান কাটা গেছে চিকিৎসকের ভুলে বিষয়টি বুঝতে পেরেও অসীম উরাও ঘটনার তদন্তের দাবি জানিয়ে বালুরঘাট হাসপাতাল সুপারের দারস্থ হন। ওই সদ্যজাত শিশুর দিদা শান্তি টপ্পোও বুধবার রাতে জানান যে তার নাতির ডান কান কাটা গেছে। রাতে বিষয়টি জানাজানি হতেই বালুরঘাট জেলা হাসপাতাল সুপার ডাঃ তপন বিশ্বাস সেখানে ছুটে আসেন। তিনি সূর্যমনির সঙ্গে কথা বলেন। এমনকি ওই শিশুপুত্রকেও দেখেন। হাসপাতাল সুপার জানান, ওই সদ্যজাত শিশুর কান কাটা যাবার অভিযোগ ঠিক নয়। বুধবার রাতে ওই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানালেও বৃহস্পতিবার সকালে অসীম উরাও জানান, বুধবার রাতে তাঁকে দিয়ে জোর করে মিথ্যা কথা বলিয়ে নেওয়া হয়েছিল। তার সন্তান সুস্থ্য ও স্বাভাবিক রয়েছে। আদিবাসী সংগঠন আসেকার সভাপতি সন্তোষ হেমব্রম জানান, বুধবার রাতে হাসপাতালের চিকিৎসকের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানোর পরে বৃহস্পতিবার ফের কেন উল্টো কথা বললেন অসীম তা তদন্ত দেখা হবে। হাসপাতালের চিকিৎসক বা অন্য কারো চাপে আদিবাসী ওই নিরক্ষর মানুষটি বৃহস্পতিবার মিথ্যে কথা বলতে বাধ্য হয়েছে কিনা তা দেখতে শীঘ্রই হাসপাতালে যাবেন আসেকার প্রতিনিধিরা। যদি সত্যই ওই শিশুর কান কাটা যায় চিকিৎসকের গাফিলতিতে তাহলে অভিযুক্ত ওই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হবে হাসপাতাল সুপারের কাছে বলে সন্তোষ হেমব্রম জানান। সদ্যজাত ওই শিশুপুত্রের ঠাকুরদা জানান, শুক্রবারেই সমস্ত ঘটনা জেলা শাসককে জানিয়ে ঘটনার তদন্তের দাবি জানাবেন তিনি। অবিলম্বে বিষয়টি গুরুত্ব না দিলে আদিবাসী সংগঠনের তরফে বড় ধরণের আন্দোলনে নামা হবে।  জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ সুকুমার দে জানান, প্রসূতির অস্ত্রোপচারের সময় সদ্যজাত-র কান কাটার ঘটনা ঘটতেও পারে। তবে ওই শিশুপুত্র সুস্থ্যই রয়েছে। অভিযোগ পেলে ঘটনা তদন্ত করে দেখা হবে।

  • রায়গঞ্জের এক হোটেলে যুবক গুলিবিদ্ব।

    Newsbazar 24, ডেস্ক, রায়গঞ্জ, ১৫ নভেম্বর :গতলাল রাত্রে  রায়গঞ্জ থানার শিলিগুড়ি মোড় এলাকার একটি হোটেলে এক যুবক গুলিবিধ্ব হল। তড়িঘড়ি আহত ওই যুবককে রায়গঞ্জ সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। জানা গেছে আহত যুবকের নাম নিহাল দাস। বাড়ি রায়গঞ্জ থানার সেবকপল্লি  এলাকায়। উক্ত ঘটনায় অভিযোগের ভিত্তিতে  তাতন মিত্র নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় গতরাতে হোটেল থেকে খাবার খেয়ে বেরোচ্ছিল নিহাল। সেই সময়, তাতন মিত্র ও তার কিছু সঙ্গীর সঙ্গে গন্ডগোল হয়। তাতান  নিহালকে গুলি করে এবং গুলিটি  নিহালের পায়ে  লাগে। গুরুতর আহত  অবস্থায় তাকে রায়গঞ্জ সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভরতি করা হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থানে আসে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। তাতন মিত্রর বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে গতকালই রায়গঞ্জ থানার পুলিশ তাতনকে গ্রেপ্তার করে।

  • বালুরঘাটে সারা বাংলা অঙ্গনওয়ারী ও সহায়িকা কর্মী সমিতির প্রতিবাদ মিছিল।

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ১৪ নভেম্বরঃ অঙ্গনওয়ারীর সহায়িকাদের ভাতা বাড়িয়েও ফের কমিয়ে দেবার প্রতিবাদে পথে নামল সারা বাংলা অঙ্গনওয়ারী ও সহায়িকা কর্মী সমিতির দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা শাখা। এদিন সংগঠনের তরফ থেকে বালুরঘাট শহরে মিছিল করে দাবিপত্র তুলে দেওয়া হল দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা শাসককে। সারা বাংলা অঙ্গনওয়ারী ও সহায়িকা কর্মী সমিতির দক্ষিণ দিনাজপুরের অন্যতম নেত্রী সুচেতা বিশ্বাস জানান, গত অক্টোবর মাসে সারা রাজ্যের অঙ্গনওয়ারী কেন্দ্রগুলির সহায়িকাদের ভাতা বাড়ানো হয়েছিল। কিন্তু তার পরেই আবার তাদের ভাতা কমিয়ে দেওয়া হয়।  এভাবে সরকার নির্দিষ্ট ভাতা বাড়ানোর কথা ঘোষণা করে ফের কমিয়ে দেবার বিষয় তারা কখনও শোনেন নি। এর প্রতিবাদেই এদিন জেলা প্রশাসনিক ভবন ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখানো হয়। এদিনের এই আন্দোলনে জেলার বিভিন্ন এলাকার কয়েক হাজার অঙ্গনওয়ারী সহায়িকা হাজির হয়েছিলেন। আরএসপি নেত্রী সুচেতা বিশ্বাসের নেতৃত্বে পরে তাঁরা দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা শাসকের কাছে দাবিপত্র তুলে দেন।