উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর

  • নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে রাস্তা তৈরীর অভিযোগ তুলে তা বন্ধ করে দিল গ্রামবাসীরা।

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ২ জানুয়ারি— নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে রাস্তা তৈরীর অভিযোগ তুলে তা বন্ধ করে দিল গ্রামবাসীরা। বুধবার সকালে বালুরঘাট ব্লকের ডাঙ্গা গ্রাম পঞ্চায়েতের রিস্তারা বাঙ্গালকুড়ি এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। সমস্ত ঘটনা লিখিতভাবে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদের সভাধিপতি ও জেলা শাসককে জানাচ্ছেন বাসিন্দারা। জানা যায়, প্রায় এক বছর আগে বালুরঘাট ব্লকের মালঞ্চা খাঁপুর পর্যন্ত ৯ কিলোমিটার পাকা রাস্তার কাজ শুরু হয়েছিল প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনায়। শুরু থেকেই এই প্রকল্পের কাজে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছিল। এই কাজের সিডিউল মেনে কাজ না হওয়ার অভিযোগ তুলে আগেই এলাকার লোকজন সরব হয়েছিল। বাসিন্দাদের অভিযোগ, এই রাস্তার কাজে পাথরের গুড়ো ব্যবহারের সরকারী সিডিউলে রয়েছে। কিন্তু সেখানে মাটির গুড়ো ব্যবহার করা হচ্ছে। বারবার বলেও কাজ না হওয়ায় এদিন সেই কাজ বন্ধ করে দেয়। খবর পেয়েই এই কাজের বরাতপাওয়া ঠিকাদার সেখানে ছুটে আসে। কথা বলেন বাসিন্দাদের সঙ্গে। তাতেও সমাধান না হওয়ায় বাসিন্দারা একজোট হয়ে শুরু করেন গণস্বাক্ষর সংগ্রহ। তারা গোটা ঘটনা জানিয়ে জেলা পরিষদের সভাধিপতি ও জেলা শাসককে অভিযোগ জানাবেন। এলাকার বাসিন্দা নয়ন মহন্ত জানান, দীর্ঘদিন ধরে মালঞ্চা থেকে খাঁপুরগামী ৯ কিলোমিটার এই রাস্তার কাজ চলছে। অত্যন্ত নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করে রাস্তার কাজ চলছে। তারা এই কাজ যাতে বন্ধ না হয়, সেজন্য একাধিকবার ওই ঠিকাদারের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু ওই ঠিকাদারকে বারবার বলেও কাজ না হওয়ায় এলাকার লোকজন চরম ক্ষুব্ধ। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদের সভাধিপতি লিপিকা রায় জানান, এ নিয়ে অভিযোগ পেলেই জেলা পরিষদের বাস্তুকারদের সঙ্গে বিশেষ করে এ কাজের দায়িত্বপ্রাপ্ত বাস্তুকারের সঙ্গে কথা বলা হবে। প্রয়োজনে তিনি নিজে সেখানে গিয়ে পরিস্থিতি বুঝে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান।

  • পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর সভা বয়কট করে দাড়িভিটের মানুষ সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেনঃ দিলীপ ঘোষ

    রায়গঞ্জ,উত্তর দিনাজপুর  ২৭ ডিসেম্বর : গতকাল বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ  ঘোষ মালদার সভাও আইন অমান্য শেষ করে আজ উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জে আসেন দলীয় সভায়। আজ রায়গঞ্জের   চণ্ডীতলার মাঠে বিজেপি বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করেছিল। সমাবেশের আগে রায়গঞ্জের রেল ঘুমটি এলাকা থেকে মিছিল করে চণ্ডীতলার মাঠে যান দিলীপ ঘোষ। জেলা সভাপতির অনুপস্থিতে অন্যান্য জেলাস্তরের নেতৃবৃন্দ আজকের এই মিছিলে অংশ নিয়েছিলেন। বক্তব্য রাখতে গিয়ে দিলীপবাবু বলেন,  আগামী লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি দল  ভালো ফল করবে ।   যেহেতুলোকসভায় নির্বাচনে কেন্দ্রীয় বাহিনী দিয়ে ভোট হবে। তাই মানুষ শান্তিপূর্ণভাবে ভোট  দিতে পারবে বলে  তিনি আশা প্রকাশ করেন ।  তিনি বলেন, "পঞ্চায়েত ভোটের লাগামছাড়া  সন্ত্রাস লোকসভায় হবে না। কারণ এই ভোটে আসবে  দিল্লির পুলিশ। তাদের একহাতে থাকবে রুল অন্যহাতে বন্দুক। তৃণমূল কর্মীরা  যা পছন্দ চেয়ে নেবেন। রুল খেতে চাইলে রুল আবার গুলি খেতে চাইলে গুলি, দুটোই পাওয়া যাবে। লোকসভা ভোটের সময়ে  তৃনমূলের কেউ যদি বুথে গিয়ে ঝামেলা করে তাহলে । কেন্দ্রীয় বাহিনীর রুলের আঘাতে হাড় ভাঙলে জুড়তে সময়  লাগবে।" ফসল বিমা যোজনা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে দিলীপ ঘোষ বলেন, "মুখ্যমন্ত্রী প্রতিদিনই মিথ্যে কথা বলেন। ফসল বিমা যোজনার টাকা ৫০ শতাংশ কেন্দ্র দেয় , বাকিটা রাজ্য সরকার দেয়। কিন্তু তিনি তা অস্বীকার করেন। সম্পূর্ণ ডেটা ওয়েবসাইটে দেওয়া রয়েছে। আমি নিজে সোশাল মিডিয়ায় একটি লাইভ ভিডিয়োও আপলোড করেছি। সেখানে আপনারা দেখতে পারবেন কেন্দ্রীয় সরকারের প্রকল্পের নামের উপর স্টিকার দিয়ে রাজ্য সরকারের প্রকল্পের নাম সেঁটে দেওয়া হয়েছে।" ভাঙড়ের আন্দোলন নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সমালোচনা করে তিনি বলেন, “ সরকারের কোন কাজের সিদ্বান্ত যদি  মানুষের  পছন্দ না হয়  তাঁরা আন্দোলন করতেই পারেন। তাঁদের কথা না শুনে জোর খাটানো উচিত কী? মুখ্যমন্ত্রী একসময়ে মানুষের অধিকার রক্ষার জন্য লড়াই  করে ক্ষমতায় এসেছেন। আর  এখন ক্ষমতায় এসে মানুষের বিপক্ষে চলে গেলেন?" লোকসভা নির্বাচনে রায়গঞ্জে দাড়ানোর প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, দল তাকে যেখানে  লড়তে বলবে তিনি সেখান থেকে লড়াই করবেন। তবে এ ব্যাপারে কোণ সিদ্বান্ত এখনও হয়নি। দাড়িভিটে  প্রসঙ্গে তিনি বলেন, পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর সভা বয়কট করে দাড়িভিটের মানুষ সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। দাড়িভিট স্কুলের ঘটনার পরও শুভেন্দু অধিকারী  সেখানকার নিরীহদের গ্রেপ্তার করিয়েছেন। এখন আবার সেখানে সভা করতে যাচ্ছেন। নিহতদের পরিবার ও স্থানীয়দের উপর অত্যাচার চালানো হয়েছে। আমার মনে হয় সেখানকার মানুষেরা সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।"      

  • বালুরঘাট পুরসভা এলাকায় ৪ টি কমিউনিটি টয়লেটের উদ্বোধন

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ২৫ ডিসেম্বরঃ মিশন নির্মল বাংলা প্রকল্পে মঙ্গলবার বালুরঘাট পুরসভা এলাকায় ৪ টি কমিউনিটি টয়লেট চালু হল। এদিন বালুরঘাট সদর মহুকুমা শাসক ঈশা মুখার্জী এই চারটে কমিউনিটি টয়লেটের উদ্বোধন করেন। গত দুমাস আগে বালুরঘাট পৌরসভার  তৃণমূল পরিচালিত বোর্ডের মেয়াদ শেষ হয়েছে।  প্রশাসক হিসেবে দায়িত্বভার সামলাচ্ছেন সদর মহুকুমা শাসক ইশা মুখার্জি । প্রায় দেড় বছর আগে মিশন নির্মল বাংলা প্রকল্পে বালুরঘাট পুরসভার ২৫ টি ওয়ার্ডে ৪৭ টি কমিউনিটি টয়লেটের কাজ শুরু হয়েছিল । যদিও সেসব টয়লেট চালুর আগেই  তৃণমূল পরিচালিত বোর্ডের মেয়াদ শেষ হয়ে যায়। বড়দিনের দুপুরে বালুরঘাটের মহুকুমা শাসক চারটে কমিউনিটি টয়লেট এর উদ্বোধন করলেন। যার মধ্যে বালুরঘাট থানা সংলগ্ন এলাকার প্রায় ৯ লক্ষ ২০ হাজার টাকা ব্যায়ে একটি ও বাকিগুলি শহরের ১১ নং, ১৮ নং ও ২০ নং ওয়ার্ডে। এদিন টয়লেটের উদ্বোধন করে মহুকুমা শাসক জানান, দীর্ঘদিনের পুরবাসীর দাবি মেনে এদিন ৪ টি টয়লেট চালু করা হল। বাকি ৪৩ টি টয়লেট পর্যায়ক্রমে চালু হবে।  তিনি জানান, এই সমস্ত কমিউনিটি টয়লেটের দায়িত্ব নেবে বালুরঘাট পৌরসভা এবং তা দেখভালের জন্য সর্বক্ষণের কর্মী নিয়োগ করবে পৌরসভা ।  শহরবাসীর দাবি ছিল জনবহুল এলাকা যেমন বাসট্যান্ড,  বাজার,  বিভিন্ন অফিস ও আদালত কাছাড়ি সংলগ্ন এলাকায় কমিউনিটি টয়লেট চালু করার । মহুকুমা শাসক জানান,  কমিউনিটি টয়লেটের অভাব থাকলেও ৪৭ টা কমিউনিটি টয়লেট বালুরঘাট শহরে চালু হলে জনগণের সমস্যা অনেকটাই মিটবে। তবে পুরসভার উদ্যোগে এই প্রকল্পের বেশিরভাগ টয়লেট নির্মাণে গড়ে তিন লক্ষ টাকা খরচ হবে। বিগত বোর্ড বালুরঘাটের পৌর পরিষেবা পুরবাসীদের জন্য যেসমস্ত প্রকল্প রুপায়িত করছে তা জনগণের সামনে তুলে ধরতে চারটি সুসজ্জিত গাড়ি বের করা হয় এদিন। এই গাড়িগুলি আগামী চার দিন বালুরঘাট  শহরের বিভিন্ন ওয়ার্ডে ঘুরে ঘুরে সাধারণ মানুষের কাছে পৌর পরিষেবায় সরকারি সাফল্য জনগণকে অবহিত করবে।

  • ১৫ কেজি সোনা সহ তিন দুস্কৃতিকে গ্রেফতার করল দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পুলিশ।

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ১৬ ডিসেম্বরঃ হরিয়ানার গুরগাও থেকে একটি সোনার দোকান থেকে চুরি যাওয়া ১৫ কেজি সোনা সহ তিন দুস্কৃতিকে গ্রেফতার করল দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পুলিশ। ধৃতদের মধ্যে এক জনের বাড়ি বাংলাদেশের দিনাজপুর জেলায়। রবিবার ধ্রতদের বুনিয়াদপুর মহকুমা আদালতে তোলা হলে চার দিনের ট্রাঞ্জিট রিমান্ডের নির্দেশ দেন বিচারক। জানা যায়, গুড়্গাওয়ের পিসি চন্দ্র জুয়েলার্সে সাফাই কর্মী হিসাবে কাজ করত বংশীহারির বাসিন্দা জাফির হাসান। কিছু দিন আগে যাফর হাসান খবর দিলে জেলার হিলি বংশীহারি এবং বাংলাদেশ থেকে পাচ জনের একিটি ডাকাত দল হাজির হয় গুড়্গাওয়ে। ৯ ডিসেম্বরব গভীর রাতে ওই জুয়েলারির স্ট্রং রুমের ছাদ ড্রিলিং মেশিন দিয়ে ফুটো করে স্ট্রং রুমের ভিতরে ঢোকে তারা। প্রায় এক ঘন্টার অপারেশন চালিয়ে স্ট্রং রুমের ভিতরে থাকা ১৫ কেজি ২০০ গ্রাম সোনা ও মনি মুক্তার অলংকার নিয়ে চম্পট দেয় তারা। ১০ তারিখ সকালেই দোকান মালিকের নজরে আদে গোটা ঘটনা। ওই দিন দুপুরে সেক্টর ১৪ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয় ওই দোকান মালিকের পক্ষ থেকে। এরপরই তদন্তে নামে হরিয়ানা পুলিশের এক বিশেষ তদন্তকারী দল। মোবাইলের সূত্র মারফত ১২ তারিখেই হাজির হয় বালুরঘাটে। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পুলিশের সাহায্য নিয়ে ওই তদন্তকারী দল দুটি দলে ভাগ হয়ে হিলি ও বংশীহারিতে তল্লাসী চালায়। তিনদিন পর বংশীহারির বাসিন্দা জাফর হাসান, হিলির বাসিন্দা সুলতান মমতাজ এবং বাংলাদেশ দিনাজপুরের বাসিন্দা সফিকুল মন্ডলকে গ্রেফতার করে। দক্ষিণ দিনাজপুরব্জেলা পুলিশ সুপার নগেন্দ্র নাথ ত্রিপাঠি জানান, ধৃতদের কাছ থেকে ১৫ কেজি ২০০ গ্রাম সোনার গহনা উদ্ধার হয়েছে। যারব্বাজার মুল্য পাচ কোটি টাকার বেশী। ধ্রতদের চারদিনের ট্রাঞ্জিট রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। সোমবার সকালে তাদের নিয়ে গুরগাওয়ের উদ্যেশে রওনা দেবে বিশেষ তদন্তকারী দল। এই ঘটনায় বাকীদের খোজে তদন্ত চলছে।

  • বালুরঘাটে এক বৃদ্ধাকে বেধড়ক মারধোর করে রাস্তায় ফেলে দেবার অভিযোগে গ্রেপ্তার বৃদ্ধার নাতি।

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ১৪ ডিসেম্বরঃ এক বৃদ্ধাকে বেধড়ক মারধোর করে রাস্তায় ফেলে দেবার অভিযোগে গ্রেপ্তার হল ওই বৃদ্ধার  নাতি। নাতির মারে তার পাঁজরের হাড় ভেঙ্গে গেছে বলে হাসপাতাল সুত্রে খবর। শুক্রবার দুপুরে বালুরঘাট শহরের ১৭ নং ওয়ার্ডের বঙ্গী নিউ কলোনী এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। জানা যায়, জখম ওই বৃদ্ধার নাম শিখা সাহা (‌৮০)‌। স্বচ্ছল ওই পরিবারে দুই ছেলেকে নিয়ে একসময় ভালোই ছিলেন বৃদ্ধা শিখা সাহা। দীর্ঘ দিনেই দুই ছেলেই মধ্যে সম্পত্তি বন্টন করে দিয়েছেন। বড় ছেলে পেশায় পুলিস কর্মী কয়েক বছর আগে মারা যাবার পরে বৌমা ও নাতির সঙ্গেই থাকতেন তিনি। স্থানীয় লোকজন জানায়, প্রায় প্রতিদিনই মদ্যপ অবস্থায় বাড়ি ফেরে নাতি রাহুল সাহা। বাড়িতে ঢুকে মাঝে মাঝেই ওই বৃদ্ধাকে মারধোর করে। শুক্রবার সকালেও লোহার রড দিয়ে এলোপাথারী মারধোর করে। এরপরে কান্না ও যন্ত্রণায় ছটফট করতে থাকলে তাঁকে রাস্তায় ফেলে দিয়ে চলে যায় ওই গুণধর নাতি। তার চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে আসেন। এই ঘটনার প্রতিবাদ জানান তাঁরা। প্রতিবেশিরা প্রতিবাদ করতে তাদের উপর হাঁসুয়া নিয়ে তেড়ে আসে বলে অভিযোগ। এরপরে প্রতিবেশিরাই একজোট হয়ে বালুরঘাট থানায় ও জেলা প্রটেকশন অফিসারকে অভিযোগ জানানোর পাশাপাশি বালুরঘাট হাসপাতালে ভর্তি করেন তাঁকে। ওই বৃদ্ধার সিটিস্ক্যান ও এক্স-‌রের পরে চিকিৎসকরা জানান, তার পাঁজরের হাড় ভেঙ্গে গেছে। পুলিসি অভিযোগের পরেই বালুরঘাট থানার পুলিস বাড়িতে এসে রাহুল সাহাকে গ্রেপ্তার করে। এলাকার বাসিন্দা নবকুমার সাহা জানান, এদিন সকালে ওই বৃদ্ধা রাস্তায় পড়ে ছটফট করতে থাকলে প্রতিবেশিরা তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে। বালুরঘাট থানায় ও জেলা প্রটেকশন অফিসারের কাছে অভিযোগ জানানো হয়েছে।  

  • দক্ষিণ দিনাজপুরের বালুরঘাটে সবলা মেলা র শুভ উদ্বোধন হল

    newsbazar24: অজয় সরকার, বালুরঘাট, ৯ ডিসেম্বরঃ এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে রবিবার থেকে বালুরঘাট হাইস্কুল ময়দানে শুরু হল সবলা মেলা। এদিন দুপুরে ফিতে কেটে মেলার উদ্বোধন করেন দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা শাসক দীপাপ প্রিয়া পি। উপস্থিত ছিলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের রাষ্ট্রমন্ত্রী বাচ্চু হাঁসদা, উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন পর্ষদের ভাইস চেয়ারম্যান বিপ্লব মিত্র, বালুরঘাট লোকসভার সাংসদ অর্পিতা ঘোষ, দক্ষিণ দিনাজপুর পুলিস সুপার নগেন্দ্র নাথ ত্রিপাঠী সহ একাধিক ব্যক্তিত্ব। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বিভিন্ন ব্লকের স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলাদের হাতে তৈরী বিভিন্ন জিনিষ ও তাদের উৎপাদিত খাদ্য ও হস্তশিল্প নিয়ে শুরু হয়েছে এই মেলা। প্রতিদিন দুপুর থেকে রাত পর্যন্ত চলবে এই মেলা। মেলায় মোট ৫০ টি স্টল এসেছে। মেলায় উপস্থিত দর্শকদের বিনোদনের জন্য থাকছে স্থানীয় শিল্পীদের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন। অনুষ্ঠানে জেলা শাসক দীপাপ প্রিয়া পি জানান, জেলার বিভিন্ন ব্লকের স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলাদের হস্তশিল্প ও উৎপাদিত দ্রব্য প্রদর্শনী ও বিক্রয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে এই মেলায়। এরফলে জেলায় গোষ্ঠীর মহিলাদের উৎপাদিত দ্রব্যের ও হস্তশিল্প বিক্রয়ের এক দিক খুলে যাবে।

  • দক্ষিণ দিনাজপুরের পতিরাম নাগরিক ও যুব সমাজের তরফ থেকে দুস্থদের শীতবস্ত্র প্রদান

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ৯ ডিসেম্বরঃ দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার পতিরাম নাগরিক ও যুব সমাজের তরফ থেকে রবিবার পতিরাম এলাকার বর্ষাপাড়া, তুরিপাড়া, ফরিদপুর, চৌরঙ্গী সহ বিভিন্ন এলাকার প্রায় ৫০০ লোকের মধ্যে শীতবস্ত্র বিলি করা হল। এদিন সকাল থেকে পতিরামের ওই নাগরিক সমাজের তরফে ওই সব গ্রামগুলিতে ঘুরে ঘুরে সংগঠনের সদস্যরা শীতবস্ত্র বিলি করেন। আগেও সংগঠনের তরফে দু’‌দফায় মোট ৮০ টি পরিবারকে শীতবস্ত্র বিলি করা হয়েছিল। পতিরাম নাগরিক ও যুব সমাজের সম্পাদক বিশ্বজিৎ প্রামাণিক জানান, শীত পড়তেই এলাকার দুঃস্থদের শীতের হাত থেকে রক্ষার জন্য শীতবস্ত্র তুলে দেওয়া হল। বছরের অন্যান্য সময়ে নানাবিধ সামাজিক কাজ করা হয় সংগঠনের তরফে। শীতবস্ত্র বিলির এই উদ্যোগে পতিরাম এলাকার বহু মানুষ সামিল হয়েছেন।

  • দক্ষিণ দিনাজপুরের তপন ব্লকের রামপুর এলাকার কাদামাখা এক ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ৯ ডিসেম্বরঃ পুকুর থেকে কাদামাখা এক ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার  তপন ব্লকের রামপুর এলাকার ঘটনা। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রবিবার সকালে তপন থানার মালাহারের বাসিন্দা চৈতন্য টুডু (‌৪৫)‌ নামে ওই ব্যক্তির মৃতদেহ রামপুরের একটি পুকুর থেকে উদ্ধার হয়। মৃত ওই ব্যক্তির দেহ কাদামাখা অবস্থায় পড়ে ছিল বলে জানা যায়। সকালে মৃতদেহটি উদ্ধারের পরে তা ময়নাতদন্তের জন্য তপন থানার পুলিস সেখান থেকে নিয়ে যায়। মৃগী রোগে আক্রান্ত ওই ব্যক্তি শনিবারেও বাড়িতে আক্রান্ত হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছিল। কিন্তু পরে খানিকটা সুস্থ্য হয়ে পুকুরে মাছ ধরার জন্য বাড়ি থেকে জাল নিয়ে বেরিয়েছিল। কিন্তু পরে আর বাড়ি ফিরে না আসায় শনিবার সন্ধ্যে বেলা পরিবারের লোকেরা এলাকায় অনেক খোঁজাখুজি করেন। সকালে বাড়ি থেকে খানিকটা দুরে নির্জন এলাকার একটি পুকুরের সামান্য জলে তার মৃতদেহ দেখতে পান। প্রাথমিক তদন্তে পুলিসের অনুমান, মৃগী রোগের কারণেই পুকুরে তার মৃত্যু হয়েছে। তবে এর সঙ্গে অন্য কোনো ঘটনাও জড়িত থাকতে পারে বলে এলাকার লোকেদের অনুমান।

  • দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার হিলিতে এক তৃণমূল কর্মীর বাড়ির পাশ থেকে দুটি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ৬ ডিসেম্বর— এক তৃণমূল কর্মীর বাড়ির পাশ থেকে দুটি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার হিলি ব্লকের পাঞ্জুল গ্রাম পঞ্চায়েতের চকুরপাই এলাকায়। বুধবার রাতেই এই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে নিপেশ সরকার নামে এক তৃণমূল কর্মীকে আটক করেছিল পুলিস। জিজ্ঞাসাবাদের পরে রাতেই তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। এভাবে জঙ্গলে বিহারের মুঙ্গেরে তৈরী দুটি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় আন্তর্জাতিক পাচারচক্রের সঙ্গে যুক্ত কিনা তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিস। জানা যায়, গোপন সুত্রে খবর পেয়ে রাতে হিলি থানার পুলিস চকুরপাই এলাকায় বিশেষ অভিযানে নামে। সে সময়ে ওই তৃণমূল কর্মীর বাড়ির পাশের জঙ্গল থেকে বিহারের মুঙ্গেরে তৈরী দুটি রিভলভার ও দুই রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করে পুলিস। হিলি থানার ওসি তাসি সেরিং শেরপা জানান, কিভাবে বাংলাদেশ লাগোয়া সীমান্ত গ্রামে এই পিস্তলগুলি এল তা নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে পুলিসের অনুমান,সামনেই বাংলাদেশের নির্বাচন। সেই উপলক্ষ্যে আন্তর্জাতিক পাচারচক্রের মাধ্যমে সেগুলি বাংলাদেশে যাচ্ছিল কিনা তা খোঁজ করে দেখছে পুলিস। তবে এই ঘটনায় কাউকেই গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিস। ‌

  • বালুরঘাটের হিলিতে ছাত্রীর ব্যাঙ্ক একাউন্ট থেকে ১০হাজার টাকা গায়েব

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ৬ ডিসেম্বর— ব্যাঙ্ক কর্মী পরিচয় দিয়ে ভূয়ো ফোন করে  এক কলেজ ছাত্রীর মার কাছ থেকে ওই ছাত্রীর একাউন্ট নম্বর জেনে কয়েক দফায় মোট ১০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে হিলি এলাকায়। জানা যায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার হিলি থানার বাবুপাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। বিএসসি প্রথম বর্ষের ছাত্রী মানসি মন্ডল এদিন দুপুরে তাঁর মার কাছে মোবাইল রেখে বাইরে গিয়েছিলেন। সেই সময়ে একটি অজানা নম্বর থেকে ফোন করে এক ব্যক্তি নিজেকে ব্যাঙ্ক ম্যানেজার পরিচয় দেন। এরপরে তিনি ওই ছাত্রীর বেশ কিছু তথ্য তুলে দিয়ে তার এটিএমের তথ্য জেনে নেন। এমনকি ওই ছাত্রীর মোবাইলে ওটিপি আসার পরে সেটি জেনে নেবার পরেই তার মোবাইল থেকে কয়েক দফায় মোট ১০ হাজার টাকা তুলে নেন ওই প্রতারক। টাকা তোলার মোবাইলে ম্যাসেজ আসার পরেই তিনি হিলি থানা ও ব্যাঙ্কের ওই শাখায় যোগাযোগ করেন। ওই ছাত্রীর মা নবনীতা মন্ডল জানান, প্রথমে ব্যাঙ্ক ম্যানেজার পরিচয় দিলেও তিনি তা বিশ্বাস করেন নি। এরপরেই তাঁকে তাঁর মেয়ে মানসির বেশ কিছু তথ্য তুলে ধরেন। সে সব সঠিক বলার পরেই তাঁর বিশ্বাস হয়। এরপরেই মোবাইলে ওটিপি আসতে থাকে। বিশ্বাসের কারণে তা বলতেই পরপর টাকা তোলার ম্যাসেজ আসতে থাকে। কয়েক দফায় মোট ১০ হাজার টাকা তুলে নিয়েছে বলে তিনি জানান। হিলি থানার ওসি  টাসি সেরিং শেরপা জানান, ব্যাঙ্কের একাউন্ট থেকে এক মহিলার টাকা হাতিয়ে নেবার অভিযোগ এসেছে। ঘটনা জেলা সাইবার ক্রাইমকে জানানো হচ্ছে।