উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর

  • রবিবারসীয় প্রচারে রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রের সিপিএম প্রার্থী মহঃ সেলিম।

    উত্তর দিনাজপুর, ২৪ মার্চঃ রবিবারসীয় প্রচারে রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রের সিপিএম প্রার্থী মহঃ সেলিম। আজ সকাল থেকেই দলীয় কর্মীদের   নিয়ে সকাল প্রচার চালালেন উত্তর দিনাজপুরের কালিয়াগঞ্জে। প্রচারে বেরিয়ে তিনি বললেন ভারতবর্ষ বহু ভাষা ভাষী ধর্ম নিরপেক্ষ দেশ। এখানে  সন্ত্রাসমুক্ত,  সাম্প্রদায়িক মুক্ত একটি সরকার চাই,। তিনি আরও বললেন, আমি সাধারণ মানুষের পাশে আছি,  ছিলাম এবং আগামীদিনেও থাকব।  এদিন উত্তর দিনাজপুরের কালিয়াগঞ্জের পুর বাজার, মহেন্দ্রগঞ্জ বাজারে নির্বাচনী প্রচার করে তিনি। দলীয় কর্মী সমর্থকদের নিয়ে সকাল থেকেই কালিয়াগঞ্জ শহরে প্রত্যেক বাড়ী বাড়ীতে যান। এবং তাকে জয়ী করার আহ্বান জানান । নির্ভয়ে ভোট দেওয়ার জন্য আবেদন জানান বাজারের সকল ক্রেতা বিক্রেতাকে। এবারের নির্বাচনে তিনি জয়ের ব্যাপারে কতটা আশাবাদী   সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের  উত্তরে  তিনি বলেন , বিগত পাঁচ বছর সাংসদ হিসেবে রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রের মানুষের পাশে তিনি ছিলেন এবং  ভবিষ্যতেও থাকবেন। এখানকার মানুষের দাবিদাওয়া নিয়ে সংসদে তিনি বারে বারে সোচ্চার হয়েছেন। এবং তিনি জয়ের ব্যাপারে ১০০ শতাংশ আশাবাদী বলে জানান।  

  • দক্ষিণ দিনাজপুরের কুশমন্ডি এলাকায় তৃণমূল কর্মীর মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ২৩ মার্চঃ শনিবার সকালে এক তৃণমূল কর্মীর দেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল কুশমন্ডি এলাকায়। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কুশমন্ডি থানার মালিগাঁও গ্রাম পঞ্চায়েতের পাঁচহাটা গ্রামের ঘটনা। পুলিশ সুত্রে জানা যায়, মৃত ওই তৃণমূল কর্মীর নাম হরিহর দাস (‌৫০)‌। একসময় আরএসপি দলের সঙ্গে যুক্ত থাকলেও কয়েক বছর আগে তিনি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছিলেন।  পঞ্চায়েত নির্বাচনে ওই পাঁচহাটা গ্রাম সংসদ বিজেপির দখলে আসে।  এবারে বালুরঘাট লোকসভা আসনে অর্পিতা ঘোষ প্রার্থী ঠিক হবার পরেই তিনি প্রচার শুরু করেছিলেন। শুক্রবার দুপুরেও তিনি বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন। তারপর আর বাড়ি ফিরে আসেন নি। শনিবার সকালে বাড়ি থেকে খানিকটা দূরে একটি পুকুরের পাড়ে তার মৃতদেহ দেখতে পান স্থানীয় লোকজন। হরিহর দাসের নাক মুখে রক্ত লেগে ছিলেন। বাম চোখের উপরেও ক্ষত চিহ্ন রয়েছে। মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ঘটনাস্থলের খানিকটা দূরে একটি রক্তমাখা বাঁশ উদ্ধার হয়েছে। সেখান থেকেই হরিহর দাসের পরিবার ও এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ, তাকে পরিকল্পনা করে খুন করা হয়েছে। ভোটের আগে জেলায় প্রথম তৃণমূলের এই কর্মী খুনের ঘটনায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে। শনিবার সকালে মৃতদেহ দেখার পরেই স্থানীয় লোকজন উত্তেজিত হয়ে ওঠেন। তারা মৃতদেহ আটকে রেখে বিক্ষোভে সামিল হন। মৃতের দাদা নরেশ দাস জানান, রং খেলার দিন দুপুরে তিনি বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন। তার পরে আর বাড়িতে ফিরে আসেন নি। এরপর কিভাবে তাঁকে খুন করা হল তা নিয়ে তারা নিজেরাও ধন্দে রয়েছেন। গোটা ঘটনার তদন্ত করে দোষীদের উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানিয়েছেন পরিবারের লোকেরা। কুশমন্ডির তৃণমূল নেতা সুনির্মল জ্যোতি বিশ্বাস জানান, হরিহর বাবুর এলাকায় যথেষ্ট প্রভাব ছিল। তিনি এলাকার একটি হাটের মালিক। এছাড়াও ব্যবসা রয়েছে তার। তৃণমূলের স্বক্রিয় রাজনীতির সঙ্গে তিনি প্রত্যক্ষভাবে যুক্ত। তাদের ধারণা, লোকসভা নির্বাচনের আগে পরিকল্পিতভাবে তাঁকে খুন করা হয়েছে। পুলিশ তদন্ত করে প্রকৃত ঘটনা সামনে আনার দাবি জানান তিনি। কুশমন্ডি থানার পুলিশ সুত্রে জানা যায়, হরিহরবাবু নেশা করতেন। শুক্রবার রং খেলার দিনেও তিনি নেশাগ্রস্থ ছিলেন। রাতে সেই সুযোগ নিয়ে কেউ খুন করতে পারেন ওই ব্যক্তিকে। তবে মৃতদেহের পাশ থেকে একটি রক্তাক্ত বাঁশ উদ্ধার হয়েছে বলে পুলিশ সুত্রে জানা যায়।

  • এক কিশোরীকে ধর্ষণের হাত থেকে বাঁচালেন কুমারগঞ্জ থানা এলাকার দুই সিভিক ভলান্টিয়ার।

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ২২ মার্চঃ  এক কিশোরীকে ধর্ষণের হাত থেকে বাঁচালেন কুমারগঞ্জ থানা এলাকার দুই সিভিক ভলান্টিয়ার। জলসা দেখতে যাবার পথে বাইকে করে জোর করে তুলে নিয়ে এক যুবতীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে দুষ্কৃতীরা। দুই সিভিক ভলান্টিয়ার এগিয়ে এসে তাদের উদ্ধার করে। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কুমারগঞ্জ থানার সমজিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের কাতলা গ্রামের ঘটনা। ওই যুবতীকে চাপে রাখতে তার ভাইকেও অপহরণ করে দুষ্কৃতীরা বলে অভিযোগ। এই ঘটনায় জড়িত মূল অভিযুক্ত পালিয়ে গেলেও এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত অন্য একজনকে গ্রেপ্তার করেছে কুমারগঞ্জ থানার পুলিশ। বাকিদের খোঁজে তল্লাসী শুরু করেছে। সমজিয়ার দেওতা গ্রামের বাসিন্দা ওই যুবতী বুধবার রাতে দুই ভাইকে সঙ্গে নিয়ে জলসা শুনতে যাচ্ছিল। বাড়ি থেকে প্রায় ৪ কিলোমিটার দূরে জলসার আসর বসেছিল। মাঝ রাস্তায় বাইকে করে ওই যুবতীকে তুলে নিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা। ফাঁকা মাঠে ধর্ষণের পরিকল্পনা ছিল তাদের । সেই সময়ে ওই এলাকা দিয়েই যাচ্ছিলেন শ্যামল মার্ডি ও মার্টিন নামে দুই সিভিক ভলান্টিয়ার। ওই মহিলার চিৎকার শুনে তারা ছুটে যায় সেখানে। এরপরেই অভিযুক্তরা সেখান থেকে পালিয়ে যায়। যাবার সময় তার এক নাবালক ভাইকে বাইকে করে অপহরণ করে নিয়ে যায়। সঙ্গে সঙ্গেই তারা কুমারগঞ্জ থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে তাদের উদ্ধার করে। বৃহস্পতিবার ওই নাবালককে উদ্ধার করে পুলিশ। এই ঘটনায় যুক্ত মূল অভিযুক্ত পালিয়ে গেলেও ঘটনার সঙ্গে যুক্ত বুলেট নামে একজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। অন্য একজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। কুমারগঞ্জ থানার ওসি সুদীপ্ত দাস জানান, ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগের ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে বলে কুমারগঞ্জ থানার ওসি জানান।  ‌

  • বালুরঘাটের ঐতিহ্যমন্ডিত সব্যসাচী ক্লাব ৫০ বছরে পদার্পণ করল

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ২২ মার্চঃ বালুরঘাটের ঐতিহ্যমন্ডিত সব্যসাচী ক্লাব ৫০ বছরে পা দিল। শুক্রবার প্রদীপ প্রজ্জ্বোলন ও পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে সুবর্ণজয়ন্ত বর্ষের অনুষ্ঠানের সূচনা হল। এদিন সকালে সামাজিক নানা সংস্কারের বার্তা নিয়ে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ক্লাব প্রাঙ্গন থেকে বেরিয়ে বালুরঘাট শহরের একাংশ পরিক্রমা করে। ক্লাবের সভাপতি সুকমল সরকার জানান, এদিন সকালে প্রভাতফেরীর মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়েছে। সন্ধ্যায় বালুরঘাটের আত্রেয়ী নদীতে প্রদীপ প্রজ্জ্বোলনের মাধ্যমে নদী পরিস্কারের বার্তা দেওয়া হবে। সারাবছর ধরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, চারা গাছ বিলি, রক্তদান শিবির সহ নানাবিধ সামাজিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে। ক্লাবের উদ্যোগে একটি ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগীতার আয়োজন করা হবে। এছাড়াও ক্লাবের উদ্যোগে বালুরঘাট পুরসভার সমস্ত আবক্ষ ও পূর্ণাবয়ব মূর্তিগুলির পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখার দায়িত্ব নেওয়া হবে বছরভর। ‌

  • বালুরঘাটের ভূমিপুত্র স্বচ্ছ ভাবমূর্তির অধ্যাপক সুকান্ত মজুমদার বালুরঘাট কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী।

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ২২ মার্চঃ বালুরঘাট বিজেপি প্রার্থী হলেন ডঃ সু কান্ত মজুমদার। গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক তথা বালুরঘাটের ভূমিপুত্র সুকান্তকে প্রার্থী করতেই খুশির হাওয়া বিজেপির অন্দরে। বালুরঘাটের এই কেন্দ্রে বিজেপির প্রার্থী কে হবে তা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই জোর জল্পনা চলছিল। এমনকি এই কেন্দ্রের প্রার্থী হতে চেয়ে শতাধিক ব্যক্তি বিজেপিতে আবেদন জানিয়েছিলেন। কিন্তু সকলকে পেছনে ফেলে একেবারে শীর্ষে উঠে এলেন এই অধ্যাপক। বালুরঘাট শহরের ১৬ নং ওয়ার্ড শহরের খাদিমপুর মাস্টারপাড়া এলাকার বাসিন্দা তিনি। যদিও পেশাগত কারণে মালদায় থাকতে হয় বেশিরভাগ সময়েই। বালুরঘাটের এই বাড়িতেই বৃদ্ধ বাবা ও মা রয়েছেন। বালুরঘাট খাদিমপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক ও বালুরঘাট কলেজ থেকে অনার্স পাশ করেন তিনি। গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকরী চলাকালীনই তিনি ডক্টরেট করেন। রাজনীতির বাইরে থাকা সুকান্ত বাবু ছোটোবেলা থেকেই সামাজিক কাজ ও যুক্তি তর্ক প্রতিযোগিতায় একাধিক পুরস্কার লাভ করেছেন। ০৭ সালে বালুরঘাট ব্লকের রাজুয়া সখী সুন্দরী উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা শুরু করেন। পরে দার্জিলিং গর্ভনমেন্ট কলেজে দুবছর শিক্ষকতা, শিলিগুড়ি কলেজে ৩ বছর শিক্ষকতা করেন। ১৩ সালে গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে বোটানী বিভাগে অধ্যপকের পদে যোগ দেন। সুকান্ত মজুমদার জানান, তিনি দীর্ঘ ২০ বছর ধরে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন। স্বয়ং সেবক সংঘের তরফেই তার নাম দিল্লীতে পাঠানো হয়েছিল। পাশাপাশি জেলা বিজেপির তরফেও একাধিক নাম পাঠানো হয়েছিল। তবে শেষমেশ সব জল্পনার অবসান করে বালুরঘাটের বাসিন্দা স্বচ্ছ ভাবমূর্তির শিক্ষিত যুবক সুকান্তকেই প্রার্থী হিসাবে দলের সিলমোহর মিলল। এদিন বিষয়টি টিভিতে দেখার পরেই সুকান্ত বাবু জানান, দলের তরফে তাঁকে প্রার্থী করা হয়েছে। বালুরঘাট লোকসভা আসনে তিনি জিতে দলকে এই কেন্দ্রটি উপহার দিতে চান। পাশাপাশি বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রের  বাসিন্দাদের জন্য কাজ করার সুযোগ মিলবে বলে আশাবাদী তিনি।

  • বালুরঘাট শহর সংলগ্ন চকভৃগু এলাকায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ড

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ২০ মার্চ:  ভয়াবহ অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটল বালুরঘাট শহর সংলগ্ন চকভৃগু এলাকায়। অল্পের জন্য বড়সড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেল একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের আবাসিক গৃহ। বুধবার দুপুর একটা নাগাদ এই অগ্নি সংযোগের ঘটনা ঘটে। এদিন দুপুরে চকভৃগু  নদীপার উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে চকভৃগু তপন রাস্তার ধারে একটি খাতাপত্রের দোকানে প্রথম আগুন লাগে। পাশেই ছিল দুটি হোমিওপ্যাথি ওষুধের দোকান।  দুপুরে মুর্হূর্তেই আশপাশের দোকানে ছড়িয়ে পড়ে। ওই দোকানঘরগুলির পেছনেই ছিল বালুরঘাট নদীপার উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রাবাস। নীচে ওই বিদ্যালয়ের ছাত্রদের শৌচাগার। ছাত্রাবাসের দোতালার জানালাও আগুনে পুড়ে যায়।  আগুনে পরপর তিনটি দোকান সম্পূর্ণ ভষ্মীভূত হয়ে যায়। যারমধ্যে একটি খাতাপত্রের দোকান ও দুটি হোমিওপ্যাথি ঔষধের দোকান। আগুন দাউ দাউ করে জ্বলতে দেখে স্থানীয় লোকজন ছুটে এসে আগুন নেভানোর কাজ শুরু করে। খবর দেওয়া হয় দমকল দপ্তরে। খবর পেয়ে বালুরঘাট থেকে দমকলের দুটি ইঞ্জিন সেখানে ছুটে আসে। বিপদের আশঙ্কায় বিদ্যালয়ের বেশ কয়েকটি ক্লাস ছুটি দেওয়া হয়। এই ঘটনার জেরে প্রায় ঘন্টাখানেক চকভৃগু তপন রুটে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। খবর পেয়েই ডিএসপি হেড কোয়ার্টার ধীমান মিত্র সেখানে ছুটে আসেন। প্রায় এক ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রনে আসে। বিদ্যুতের সার্কিটের কারণেই আগুন লেগেছে বলে প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

  • বেতন না পাওয়ায় বালুরঘাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের ঠিকাকর্মীরা বিক্ষোভে সামিল

    অজয় সরকার,  বালুরঘাট, ১৯ মার্চ: টানা দুইমাস ধরে বেতন না মেলায় বালুরঘাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের ২০০ ঠিকাকর্মী বিক্ষোভে সামিল হয় বালুরঘাট হাসপাতাল চত্তরে। টানা দুই ঘন্টা ধরে চলে এই কর্মবিরতি। জানা যায়, গত দুই মাস থেকে শুধু এই সব ঠিকা কর্মীরা বেতন পাচ্ছেন না। এমনকি তাদের প্রকৃত বেতন কত তাও বারবার জানতে চাইলেও জানানো হচ্ছে না বলে ঠিকাকর্মীরা এদিন ক্ষোভ প্রকাশ করেন। বালুরঘাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের রক্ষনাবেক্ষনের দায়িত্বে রয়েছে সিস নামে একটি বেসরকারী সংস্থা। কিন্তু এই ওই সংস্থার বালুরঘাটে কোনো অফিস নেই। সেকারণে সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে যুক্ত থাকা কর্মীরা তাদের মাসিক বেতনের কোন তথ্যই পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ। হাসপাতালের দায়িত্বপ্রাপ্ত ঠিকাদার সংস্থার কাছে কর্মীরা বারবার জানতে চেয়েছেন। কিন্তু তারা কর্মীদের কোনো সদুত্তর দেন নি। এদিনের দুই ঘন্টার এই প্রতীকী আন্দোলনে সামিল রাখি সরকার সুত্রধর নামে এক ঠিকাকর্মী জানান, গত দুই মাস ধরে তাদের বেতন মিলছে না। এমনকি তাদের চাকরির কোনো তথ্যও তাদের হাতে নেই। এমনকি কোন কাজের কি বেতন কাঠামো তা নিয়েও কোনো সুষ্পষ্ট বেতন কাঠামো নেই।  অবিলম্বে তাদের বকেয়া বেতন না মেটানো হলে আগামীতে তারা আরও বড় ধরণের আন্দোলনে সামিল হবার হুশিয়ারি দেন এদিন। এদিন এই প্রতীকি ধর্মঘটের পরে গোটা ঘটনা জানিয়ে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা শাসক, জেলা মুখ্যস্বাস্থ্য আধিকারিককে লিখিতভাবে অভিযোগ জানানো হয়েছে ঠিকাদার কর্মিদের তরফে।

  • নির্বাচনের মুখে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় উদ্বার হল বেআইনি প্রচুর টাকা

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ১৯ মার্চঃ নির্বাচনের মুখে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় উদ্বার হল প্রচুর  টাকা।  সোমবার দুপুরে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কুমারগঞ্জ থানার বরাহার এলাকায় বালুরঘাটগামী  একটি  গাড়ি থেকে উদ্ধার হল ২৩ লক্ষ ৮০ হাজার  টাকা।  কুমারগঞ্জ থানার পুলিশ সুত্রে জানা যায়, এদিন দুপুরে বরাহার এলাকায় নাকা চেকিং পয়েন্টে প্রতিটি গাড়ির তল্লাসী চলছিল। সে সময়ে মালদা থেকে প্রাণসাগর হয়ে বালুরঘাটগামী একটি বিলাসবহুল গাড়ি থেকে ওই টাকা উদ্ধার হয়। এই ঘটনায় ওই গাড়ির চালক সহ মোট ৬ জনকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনার খবর পেয়েই নির্বাচন দপ্তরের আধিকারিকরা সেখানে পৌঁছায়। পুলিশি জেরায় ধৃতরা জানায়, তারা মালদা থেকে লটারির টাকা ভাঙ্গানোর পরে তা নিয়ে বালুরঘাটে ফিরছিলেন। ধৃতদের মধ্যে দুজনের বাড়ি বালুরঘাটে ও চারজনের বাড়ি গোপালগঞ্জ এলাকায়। ‌কুমারগঞ্জ থানার ওসি সুদীপ্ত দাস জানান, বরাহারে নাকা চেকিং এর সময়ে মোট ২৩ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা উদ্ধার হয়েছে। সব নোটই ২০০০ টাকা ও ৫০০ টাকার। ঘটনার তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। (ছবিতে‌কুমারগঞ্জ থানার ওসি সুদীপ্ত দাসের সামনে উদ্বার হওয়া টাকার প্যাকেট খুলছেন এক পুলিশ আধিকারিক এবং নীচে উদ্বার করা টাকা)  

  • দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় এবারে নির্বাচনে ম্যাসকেট করা হল কুশমন্ডির হস্তশিল্প মুখা কে

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ১৮ মার্চঃ  কুশমন্ডির মহিশবাথানের হস্তশিল্প মুখা কে এবারে নির্বাচনে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ম্যাসকেট করা হয়েছে। সোমবার দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা শাসক দীপাপ প্রিয়া পি এক সাংবাদিক সম্মেলন করে একথা জানান। মুখা শিল্পের এই মুখাকে নিয়ে তৈরী ম্যাসকেট জেলার প্রতিটি ব্লক ও জেলা প্রশাসনের দপ্তরে নতুন ভোটারদের তালিকায় নাম তোলা ও ভোটারদের ভোটদানে উৎসাহিত করতে জেলা নির্বাচন দপ্তরের উদ্যোগে প্রচার শুরু হল। এদিন এই ম্যাসকেটের উদ্বোধন করে জেলা শাসক তথা জেলা নির্বাচন আধিকারিক দীপাপ প্রিয়া পি জানান, মঙ্গলবার ও বুধবার দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার প্রতিটি বুথে এই ম্যাসকেটের মাধ্যমে প্রচার চালানো হবে। ভোটারদের ভোটদানে উৎসাহ বাড়ানো, নতুন ভোটারদের সচেতনতা বাড়ানো ও নির্বাচনে যে  ভিভি প্যাড ও ইভিএম ব্যবহার করা হবে তাও ভোটারদের দেখানো হবে। ভোটাররাও এই দুই দিন তাদের ভোটগ্রহন কেন্দ্রে গিয়ে তাদের নাম ভোটার তালিকায় রয়েছে কিনা তাও খতিয়ে দেখতে পারবেন।

  • দক্ষিণ দিনাজপুরের তপন থানার বাসুদেবপুর গ্রামে আগুনে ভষ্মীভূত বাড়ী

    অজয় সরকার, বালুরঘাট, ১৮ মার্চঃ  আগুন লেগে ভষ্মীভূত হয়ে গেল দুটি বাড়ি। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার তপন থানার ১১ নং গোফানগর গ্রাম পঞ্চায়েতের বাসুদেবপুর গ্রামে রবিবার রাতে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এদিন রাতে খবর পেয়েই বালুরঘাট থেকে দমকলের দুটি ইঞ্জিন সেখানে ছুটে আসে। প্রায় দুই ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রনে আসে। যদিও ততক্ষণে ওই বাড়িতে থাকা পঞ্চাশোর্ধ গবাদি পশু জীবন্ত দগ্ধ হয়ে মারা যায়। যদিও এই ঘটনায় কেউ মারা না গেলেও একজন জখম হয়ে বালুরঘাট জেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। জানা যায়, বাসুদেবপুরের বাসিন্দা বিশ্বনাথ খালকো  নামে এক ব্যক্তির বাড়িতে রাত আটটা নাগাদ বিদ্যুতের শট সার্কিটের কারণে আগুন লাগে। আগুন দেখেই ছুটে আসেন এলাকার লোকজন। স্থানীয় লোকজন নিজেরাই শুরুতে আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। খবর দেওয়া হয় দমকল দপ্তরে। খবর পেয়ে বালুরঘাট থেকে প্রায় ১৫ কিলোমিটার বাসুদেবপুরে দমকলের দুটি ইঞ্জিন পৌঁছায়। যদিও ততক্ষণে ওই দুই বাড়িতে থাকা প্রায় ৪৫ টি ছাগল ও বেশ কয়েকটি গরু আগুনে পুড়ে মারা যায়। রাতে খবর পেয়ে এলাকার বিধায়ক তথা মন্ত্রী বাচ্চু হাঁসদা জানান, দুর্ঘটনাগ্রস্থ ওই পরিবার দুটির সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। তাদের সবরকমের সাহায্যের আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।