Newsbazar24.com / রাজ্য

  • মমতার নবান্নে বৈঠকের ডাকের অনুরোধ প্রত্যাখ্যান জুনিয়র ডাক্তারদের, কাল ফের বৈঠকের আহ্বান

    15-Jun-19 01:01 am


    ডেস্ক,১৪ জুন:  অবশেষে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আজ রাতে  পশ্চিমবঙ্গে জুনিয়র চিকিৎসকদের ধর্মঘটের বিষয়ে আলোচনা করতে নবান্নে ডেকে পাঠিয়েছিলেন আন্দোলনরত জুনিয়র ডাক্তারদের। কিন্তু বৈঠকের আহ্বানে সাড়া দিলেন না চিকিৎসকরা। গতকাল মুখ্যমন্ত্রী যা বলেছেন, সে জন্য তাঁর শর্তহীন ক্ষমাপ্রার্থনার দাবিতে অনড় চিকিৎসকরা এবং ধর্মঘট  প্রত্যাহারের জন্য প্রশাসনের কাছে ছয়টি শর্তও দিয়েছেন  তাঁরা। জুনিয়ার ডাক্তারদের এই আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়ে  রাজ্য জুড়ে বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে ৩০০ জনেরও বেশি সিনিয়র চিকিৎসক আজ পদত্যাগ করেছেন এবং আন্দোলনকারীদের সঙ্গেই জুড়েছেন। সন্ধ্যাবেলায় সিনিয়র ডাক্তারদের সঙ্গে দেখা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং পরে শনিবার আলোচনার জন্য আন্দোলনকারীদের আমন্ত্রণ জানান কিন্তু তারা প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন

    আন্দোলনরত চিকিৎসকরা শুক্রবার সাক্ষাতের জন্য না আসায় ফের শনিবার বিকেল সাড়ে টায় রাজ্যের সচিবালয়ে নবান্নে তাঁদের সঙ্গে আবার বৈঠকে বসার ডাক দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী, জানিয়েছেন সিনিয়র চিকিৎসক সুকুমার মুখোপাধ্যায়। সুকুমার মুখোপাধ্যায় সহ অন্যান্য সিনিয়র চিকিৎসকদের সঙ্গে আজ নবান্নেই সমাধান খুঁজে বের করতে দীর্ঘ দুই ঘণ্টা ধরে আলোচনা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

     এরপরই মুখ্যমন্ত্রী তিন থেকে চার জন জুনিয়র চিকিৎসককে সচিবালয়ে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য মেডিকেল শিক্ষা অধিকর্তা প্রদীপ মিত্রকে নির্দেশ দেন। তবে বৈঠকে যেতে অস্বীকার করেন চিকিৎসকরা

    "জুনিয়র চিকিৎসকদের যৌথ ফোরামের একজন মুখপাত্র বলেন, “এটি আসলে আমাদের ঐক্য, আমাদের আন্দোলন ভেঙ্গে ফেলার একটি চক্রান্ত। আমরা রাজ্য সচিবালয়ে কোনও রকমের কোনও বৈঠকে উপস্থিত হব না। মুখ্যমন্ত্রীর এখানে (এনআরএস মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল) আসা উচিত এবং গতকাল এসএসকেএম হাসপাতালের তাঁর সফরকালে তিনি আমাদের সঙ্গে যেভাবে কথা বলেছেন, সেজন্য তাঁকে শর্তহীন ক্ষমা চাইতেই হবে।

    বৃহস্পতিবার এসএসকেএম হাসপাতাল পরিদর্শনের সময়, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যুক্তি দিয়েছিলেন যে কিছুবহিরাগত' মানুষ বিঘ্ন সৃষ্টির জন্য মেডিকেল কলেজে প্রবেশ করেছে এবং এই আন্দোলন বস্তুত সিপিআই (এম) বিজেপির একটি মিলিত ষড়যন্ত্র। 

    ডাঃ সুকুমার মুখোপাধ্যায় বলেন, শুক্রবার রাতে জুনিয়র চিকিৎসকদের জন্য রাজ্য সচিবালয়ে মুখ্যমন্ত্রী অপেক্ষা করছিলেন এবং যখন চিকিৎসকরা জানালেন তাঁরা আসবেন না তখন ফের শনিবার সন্ধ্যায় নতুন করে বৈঠকের জন্য তাঁদের অন্য সময় দেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি আরও বলেন, “আমরা আশা করি কিছু জুনিয়র ডাক্তাররা নিশ্চয়ই আসবেন। আমরা এই সমস্যার  সমাধান খুঁজে বের করার জন্য মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে এসেছি।

     

    Read : 0
    Edit

Related Posts

ধোঁয়া মুক্ত করার জন্য মানিকচকের নারায়নপুর চরের বাসিন্দাদের দেওয়া হল বিনামূল্যে এলপিজি গ্যসের কানেকশান।
শুরুহল মালদার মহা ঐতিয্যবাহী রামকেলি উৎসব ২০১৯
মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনায় রাজি জুনিয়র চিকিৎসকরা, তবে একটি শর্তে
ভস্মীভূত গৃহস্থ বাড়ি, দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবি নিয়ে অসহায় দম্পতি প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরে
মুখ্যমন্ত্রী জনগণকে বিভ্রান্ত করে আমাদের বিরুদ্বে ব্যবহার করতে চাইছেন অভিযোগ জুনিয়র চিকিৎসকদের
মুখ্যমন্ত্রীকে চিকিৎসকদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার পরামর্শ রাজ্যপালের।
মানিকচক থানা পুলিশের সাফল্য,মানিকচক উচ্চ বিদ্যালয়ের চুরি যাওয়া কম্পিউটার সামগ্রী উদ্ধার
রাজ্যজুড়ে পালিত হলো বিশ্ব রক্ত দাতা দিবস
বিশ্ব রক্তদাতা দিবস উদযাপন মালদা শহরে